অশ্বারোহীর বিশ্বভ্রমণ

৳ 306৳ 360

You Save: ৳ 54 (15%)

বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের প্রত্যন্ত এক গ্রামের এগারো বছর বয়সের কিশোরী তাসমিনাকে নিয়ে ২০১৫ সালে লেখক নির্মাণ করেছিলেন ‘অশ্বারোহী তাসমিনা’ নামে একটি ছোট্ট প্রামাণ্যচিত্র। সমাজের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে অসমবয়সী পুরুষ প্রতিযোগীদের সাথে ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ ও বিজয় অর্জনের গল্প দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে অগণিত দর্শকের। দুর্দান্ত কিশোরীর সেই সংগ্রাম ও সাফল্যের কাহিনি দেখানো হয়েছে বিশ্বের নানা প্রান্তে ছত্রিশটি চলচ্চিত্র উৎসবে। ‘অশ্বারোহী তাসমিনা’র পরিচালক হিসেবে লেখক বিভিন্ন দেশে আয়োজিত চলচ্চিত্র উৎসবে আমন্ত্রিত হয়েছিলেন। কখনো তিনি একা, আবার কখনো ছবির প্রযোজক স্ত্রী মাহবুবা বেগম হেনাসহ যোগ দিয়েছেন বেশ কয়েকটি উৎসবে। চলচ্চিত্র উৎসবে এবং উৎসবের সূত্রে অন্তত বারোটি দেশে ঘুরে এলেও ‘অশ্বারোহীর বিশ্বভ্রমণ’ বইতে তিনটি দেশের চলচ্চিত্র উৎসবে যোগদানের অভিজ্ঞতা প্রাঞ্জল ভাষায় বর্ণনা করেছেন লেখক। এতে চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত চলচ্চিত্র, উৎসব উপলক্ষ্যে আয়োজিত সেমিনার, কর্মশালা ও আনন্দ অনুষ্ঠান এবং সংগঠক ও কর্মীবাহিনির পাশাপাশি তিনটি দেশের সংস্কৃতি ও জীবন, মানুষ, প্রকৃতি এবং প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন ও স্থাপনার সাথে পরিচয় ঘটবে পাঠকের। জার্মানির প্রিজনেস ইন্টারন্যাশনালের শহর মিউনিখ, গ্রিসের অলিম্পিয়া ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের সূত্রে ছোট্ট শহর পিরগস, প্রাচীন অলিম্পিয়া নগরী এবং এথেন্সের প্রত্নতাত্ত্বিক মিউজিয়াম, স্পেনের ‘মিছে’ উৎসবের আয়োজক নগরী ভ্যালেন্সিয়া ও তার আশপাশের কয়েকটি ছোট শহরসহ রাজধানী মাদ্রিদও এসেছে এই ভ্রমণগ্রন্থে।

Book Info
Title অশ্বারোহীর বিশ্বভ্রমণ
Author ফরিদুর রহমান
Publisher আদর্শ
ISBN 978-984-96345-1-5
Edition 1st Published, 2022
Number of Pages 160
Country বাংলাদেশ
Language বাংলা

ফরিদুর রহমানের লেখা গল্পগুলো তাঁর নানা অভিজ্ঞতায় সমৃদ্ধ। বিষয়ের বৈচিত্র্য ছাড়াও নির্মোহ বর্ণনাভঙ্গি, চমৎকার রসবোধ ও তীক্ষ্ণ পর্যবেক্ষণ এসব গল্পের অন্যতম বৈশিষ্ট্য। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে জাতীয় জীবনের সবচেয়ে গৌরবময় সময়টি তিনি দেখেছেন অত্যন্ত কাছ থেকে। মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কিত গল্পগুলোতে রয়েছে সেই সময়ের নিবিড় পর্যবেক্ষণের ছাপ। ছোটগল্প ছাড়াও ভ্রমণকাহিনি ও কবিতাসহ সাহিত্যের সকল শাখায় তাঁর বিচরণ রয়েছে।
ভ্রমণকাহিনিতে সাবলীল ভাষায় লিখেছেন বিভিন্ন দেশের শহর, নগর, পুরাকীর্তি, আধুনিক স্থাপনা এবং জনজীবনের নানা প্রসঙ্গ নিয়ে। তাঁর লেখায় নদী, নিসর্গ, উদ্যান ও বনভূমি দৃশ্যমান হয়ে ওঠে, পরিচয় ঘটে ভিনদেশি জনপদের সাথে। রোজনামচাধর্মী বৃত্তান্তের বাইরে ভ্রমণগল্পে তিনি একটি নিজস্ব ধারার সূচনা করেছেন, যেখানে ভ্রমণসঙ্গী অথবা যাত্রাপথের মানুষগুলো এক একটি চরিত্র হয়ে উপস্থিত।
ফরিদুর রহমানের জন্ম ১৯৫৪ সালে। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্সসহ এমএ। পরবর্তী সময়ে পুনের ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া থেকে চলচ্চিত্র বিষয়ে গ্রহণ করেছেন উচ্চতর শিক্ষা। অনুষ্ঠান প্রযোজনাসহ বাংলাদেশ টেলিভিশনের অনুষ্ঠান বিভাগে দীর্ঘকাল গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে পত্রপত্রিকায় লেখা এবং স্বাধীন প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণের পাশাপাশি চলচ্চিত্র ও টেলিভিশনসংশ্লিষ্ট বিষয়ে পাঠদান করছেন বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে।
গল্প, উপন্যাস, অনুবাদ ও কবিতা মিলিয়ে প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা পঁচিশ। প্রকাশিত ভ্রমণকাহিনি: বার্লিনে বসন্তের দিন, নানা রঙের আফ্রিকা, দূরদেশে: একা ও একসঙ্গে, যে যায় লঙ্কায় এবং সাত দিনে সাত দেশে।

Customer Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “অশ্বারোহীর বিশ্বভ্রমণ”

Your email address will not be published.