Showing 281–300 of 326 results

  • শিক্ষা-গবেষণার সহজপাঠ

    রায়হান আরা জামান
    রায়হান আরা জামান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক। তিনি সাতক্ষীরা সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে ২০০৩ সালে গোল্ডেন ফাইভ পেয়ে এসএসসি পাস করেন। পরে ঢাকার হলিক্রস কলেজ থেকে এইচএসসি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট থেকে বিশেষ শিক্ষায় স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর। সর্বোচ্চ জিপিএ পেয়ে স্নাতক (৩.৮৫/৪) ও স্নাতকোত্তর (৪/৪) উভয় ক্ষেত্রেই বৃত্তি পেয়েছেন। শিক্ষার বিভিন্ন বিষয়ে গবেষণা করা তার মূল আগ্রহের জায়গা। এ বিষয়ে দেশি-বিদেশি জার্নালে বেশ কিছু প্রকাশনাও রয়েছে। তিনি বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের জন্য কাজ করা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘সাম্য’র সংগঠক। অবসরে গল্প লেখেন। কবি ও গদ্যকার কাদের জাহান এবং পুত্র কাব্য কিংবদন্তিকে নিয়ে তার সংসার।

    রিদওয়ানুল মসরুর
    রিদওয়ানুল মসরুর সউল ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির কলেজ অব এডুকেশনের অধীনে গ্লোবাল এডুকেশন কো-অপারেশন বিভাগে অধ্যয়নরত গ্র্যাজুয়েট শিক্ষার্থী এবং একজন তরুণ শিক্ষা গবেষক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট থেকে অনার্স-মাস্টার্স শেষে তিনি বাংলাদেশের জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড, গণসাক্ষরতা অভিযান, ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ ও সেভ দ্য চিলড্রেন ইন্টারন্যাশনালে কর্মরত ছিলেন। তিনি শিক্ষাবিষয়ক একাধিক সরকারি ও বেসরকারি গবেষণা প্রকল্পে গবেষক সদস্য ও গবেষণা সহকারী হিসেবেও কাজ করেছেন। বাংলাদেশ ও বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে শিক্ষাসংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তার বেশ কিছু গবেষণা প্রবন্ধ ও বই প্রকাশিত হয়েছে। ছোটবেলা থেকেই লেখালেখির প্রতি ভালোবাসার পরিপ্রেক্ষিতে বিভিন্ন সময়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে তার লেখা শিশুতোষ, কবিতা ও বিজ্ঞানবিষয়ক প্রবন্ধ।

    ৳ 306৳ 360
  • শিক্ষার মেরামত

    অধ্যাপক কামরুল হাসান মামুনের জন্ম ১৯৬৬ সালে, বর্তমান কিশোরগঞ্জ জেলার বাজিতপুরে। স্কুল ও কলেজ পর্যায়ে পড়াশোনা সেখানেই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ থেকে সম্পন্ন করেছেন অনার্স এবং মাস্টার্স। পরবর্তী সময়ে ইতালিতে নোবেল বিজয়ী প্রফেসর আব্দুস সালামের হাতে তৈরি ইনস্টিটিউটে বৃত্তি নিয়ে কনডেন্সড ম্যাটার ফিজিক্সে ডিপ্লোমা করেন। এরপর ১৯৯৩ সালে লন্ডনের ব্রুনেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ওআরএস স্কলারশিপ নিয়ে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। ২০০১ সালে জার্মানির বিখ্যাত হুমবোল্ডত ফেলোশিপ নিয়ে বার্লিনের পটসডাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পোস্ট ডক্টরাল গবেষক হিসাবে কাজ করেন।
    পেশাগত জীবনে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন ১৯৯২ সালে। পরবর্তী সময়ে ১৯৯৯-এ যোগ দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। তিনি অদ্যাবধি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েই কর্মরত। বর্তমানে নিযুক্ত আছেন পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে। শিক্ষকতা ও গবেষণার পাশাপাশি ভালোবাসেন দেশ ও সমাজকে নিয়ে ভাবতে, দেশের শিক্ষার্থীদের মেধার বিকাশে কাজ করতে।

    ৳ 272৳ 320
  • শূন্য থেকে পাইথন মেশিন লার্নিং: হাতেকলমে সাইকিট-লার্ন

    দূর দুরান্তের শর্টওয়েভ রেডিও স্টেশনগুলোর রিসেপশন রিপোর্ট লিখতে গিয়ে তরঙ্গের সাথে এক ধরণের ভালোবাসায় পড়ে যান আমাদের লেখক। বিশেষ করে রেডিও কম্যুনিকেশন নিয়ে। ১৯৭০ সালে ঢাকায় জন্ম নেয়া আমাদের লেখকের ছোটবেলার ঢাকার স্কাইলাইন ফাঁকা ছিলো অনেকটাই। ফলে, বাসার পুরো ছাদই পাল্টে গিয়েছিলো ‘রেডিও অ্যান্টেনা’ হিসেবে। দূরের দুর্বল সিগন্যালকে ‘অ্যাম্পলিফাই’ করার ধারণা নিতে নিতেই চলে যেতে হয় ক্যাডেট কলেজে। ছুটিতে বাসায় আসলে চাকরিজীবী বাবা মা’র দিনের অনুপস্থিতি পুরো বাসাকে ‘আর অ্যান্ড ডি’ ল্যাব বানাতে গিয়ে বৈদ্যুতিক শর্ট-সার্কিটে ফিউজ ওড়ানো ছিলো নিয়মিত ঘটনা। বাসায় আগুন ধরানোর জন্যে কম মার খেতে হয়নি তাকে।
    ইলেকট্রনিক কম্যুনিকেশনের প্রতি ‘অসম্ভব’ দুর্বলতা তাকে নিয়ে আসে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিগন্যাল কোরে। মার্কিন সেনাবাহিনীর সিগন্যাল স্কুল থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত সরকারি এবং ব্যক্তিগত উদ্যোগে ৭০ এর বেশি ট্রেনিং জুড়েছে তার অভিজ্ঞতার ঝুঁলিতে। অভিজ্ঞতার ‘ডটগুলোকে কানেক্ট’ করতে বাংলাদেশ টেলিকম্যুনিকেশন রেগুরেটরি কমিশনে প্রায় সাত বছরের অভিজ্ঞতা দিয়েছে অন্যভাবে চিন্তা করতে। পথ দেখিয়েছে বড় স্কেলের ডাটা চিনতে। খুব কাছে থেকে। সরাসরি কাজ করেছেন কোটি কোটি ডাটা রেকর্ডকে সরকারি প্রজ্ঞাতে যুক্ত করতে।
    ২০০৯ সালে জাতীয় স্কেলে প্রতিটা টেলিকম অপারেটরের ‘ইন্টারকানেকশন ভয়েস কল কস্ট মডেলিং’তৈরিতে সহযোগিতা করতে গিয়ে তার ধারণা পাল্টায় ডাটার ব্যাপারে। কোটি কোটি মিনিটের ‘ভয়েস কল’ আর ‘এসএমএস’ এর আন্তসংযোগ ‘হোলসেল’ মূল্য নির্ধারণে ডাটা যে কথা বলে সেটার প্রমান দেখেন নিজের চোখে। প্রযুক্তিগতভাবে এ ব্যাপারে সহযোগিতা দেয় ‘ইন্টারন্যাশনাল টেলিকম্যুনিকেশন ইউনিয়ন’ (আইটিইউ) – দু বছর ধরে। এই ডাটার ধারণা তাকে উদ্বুদ্ধ করে টেলিকম্যুনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং এ মাস্টার্স করতে। সরকারি কাজের ফ্রেমওয়ার্কের মধ্যে বড় বড় ডাটা ইন্টারমেডিয়ারি (গুগল, ফেইসবুক ইত্যাদি), এবং বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার (আইটিইউ, বিশ্বব্যাংক …) সাথে যোগসূত্র হিসেবে কাজ করেছেন। বর্তমানে তিনি ‘পিএইচডি রিসার্চার’ হিসেবে কাজ করছেন – নীতিনির্ধারনীদের জন্য একটা ড্যাশবোর্ড তৈরির ফ্রেমওয়ার্ক নিয়ে। এ মুহূর্তে তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনী থেকে প্রেষণে ‘ন্যাশনাল টেলিকম্যুনিকেশন মনিটরিং সেন্টার’ এ কর্মরত।

    ৳ 255৳ 300
  • শূন্য দিয়ে ভাগ করলে কী হয়?

    আহমেদ জাওয়াদ চৌধুরী আন্তর্জাতিক অলিম্পিয়াডে স্বর্ণপদকজয়ী প্রথম বাংলাদেশি। জন্ম ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০০০, চট্টগ্রামে। মা সৈয়দা ফারজানা খানম, বাবা আহমাদ আবু জায়েদ চৌধুরী। ছোটবেলায় সব বিষয়ে জানতে আগ্রহী ছিলেন, কিন্তু গণিত অলিম্পিয়াডে ২০১১ সালে প্রাইমারি ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন অব দ্য চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর তার আগ্রহ বেড়ে যায় গণিতের প্রতি। দীর্ঘদিন ধরে চট্টগ্রাম ম্যাথ সার্কেল এবং অন্যান্য ক্যাম্পের মাধ্যমে তার গণিতের প্রতি ভালোবাসা অন্যদের মাঝে ছড়িয়ে দিচ্ছেন। তিনি বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজিতে (এমআইটি) অধ্যয়নরত।


    রাহুল সাহার জন্ম চট্টগ্রামে কিন্তু তার ছোটবেলা কেটেছে ঢাকায়। ২০১৭ সালে তিনি আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেন এবং একটা ব্রোঞ্জ পদকও অর্জন করেন। বর্তমানে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের প্রিন্সটন ইউনিভার্সিটিতে কম্পিউটারবিজ্ঞান আর গণিত নিয়ে পড়াশোনা করছেন। অবসর সময়ে ম্যাজিক দেখাতে পছন্দ করেন।


    চট্টগ্রামে জন্ম নেওয়া অতনু রায় চৌধুরী ছোটবেলা থেকেই বেশ ক্রীড়ানুরাগী ছিলেন। ক্রিকেট থেকেই মূলত গণিত এবং পরিসংখ্যানে তার আগ্রহ সৃষ্টি হয়। এই আগ্রহের বশেই ২০১৩ সালে প্রথমবারের মতো অংশগ্রহণ করেন গণিত অলিম্পিয়াডে। ২০১৯ সালের এশিয়ান প্যাসিফিক ম্যাথমেটিকস অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণ করে অর্জন করেন ব্রোঞ্জ পদক। বর্তমানে অধ্যয়নরত আছেন ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে, পড়ছেন পছন্দের বিষয় গণিত নিয়েই।


    মুরসালিন হাবিবের গণিতের প্রতি আগ্রহের সূচনা হয় স্কুলের লাইব্রেরিতে একটা বই খুঁজে পাওয়ার মাধ্যমে। বইটি থেকে তিনি বুঝতে পারেন যে পাঠ্যবইয়ের গণিতের বাইরেও শেখার অনেক কিছু আছে। আর তখন থেকেই শুরু হয় তার পাঠ্যবইয়ের বাইরের গণিত শেখার যাত্রা। গণিতের প্রতি ভালোবাসা থেকেই কাজ করছেন বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াডের সাথে। পড়াশোনা করেছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে।

    ৳ 272৳ 320
  • শ্রেষ্ঠ কবিতা

    আল মাহমুদ

    আল মাহমুদ ১৯৩৬ সালের ১১ জুলাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মোড়াইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পুরো নাম মীর আব্দুস শুকুর আল মাহমুদ। হাইস্কুলে পড়াশোনাকালেই ঢাকা ও কলকাতার বিখ্যাত সাহিত্য পত্রিকাগুলোতে তার কবিতা প্রকাশিত হতে থাকে। বুদ্ধদেব বসু সম্পাদিত কবিতা পত্রিকায় তার কবিতা প্রকাশিত হলে সমসাময়িক কবি মহলে তাকে নিয়ে আলোচনার সূত্রপাত।
    প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ লোক লোকান্তর (১৯৬৩)। লোক লোকান্তর ও কালের কলস—মাত্র এই দুটি কাব্যগ্রন্থের জন্য ১৯৬৮ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কারে ভূষিত হন। সোনালি কাবিন (১৯৭৩) তাকে খ্যাতির শীর্ষে পৌঁছায়। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের পর তিনি গল্প লেখার দিকে মনোযোগী হন। ১৯৭৫ সালে তার প্রথম ছোট গল্পগ্রন্থ পানকৌড়ির রক্ত প্রকাশিত হয়। ১৯৯৩ সালে বের হয় তার প্রথম উপন্যাস কবি ও কোলাহল।
    ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের পরে তিনি দৈনিক গণকণ্ঠ পত্রিকায় সহকারী সম্পাদক হিসেবে যোগ দেন। সাহিত্যপ্রতিভার স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি একুশে পদকসহ বেশ কিছু সাহিত্য পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। এর মধ্যে ফিলিপস সাহিত্য পুরস্কার, অগ্রণী ব্যাংক শিশুসাহিত্য পুরস্কার, ফররুখ স্মৃতি পুরস্কার ও জীবনানন্দ দাশ স্মৃতি পুরস্কার অন্যতম। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি পাঁচ পুত্র ও তিন কন্যার জনক। মরহুমা সৈয়দা নাদিরা বেগম তার স্ত্রী।

    ৳ 510৳ 600
  • শ্রেষ্ঠ গল্প

    আল মাহমুদ

    আল মাহমুদ ১৯৩৬ সালের ১১ জুলাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মোড়াইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পুরো নাম মীর আব্দুস শুকুর আল মাহমুদ। হাইস্কুলে পড়াশোনাকালেই ঢাকা ও কলকাতার বিখ্যাত সাহিত্য পত্রিকাগুলোতে তার কবিতা প্রকাশিত হতে থাকে। বুদ্ধদেব বসু সম্পাদিত কবিতা পত্রিকায় তার কবিতা প্রকাশিত হলে সমসাময়িক কবি মহলে তাকে নিয়ে আলোচনার সূত্রপাত।
    প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ লোক লোকান্তর (১৯৬৩)। লোক লোকান্তর ও কালের কলস—মাত্র এই দুটি কাব্যগ্রন্থের জন্য ১৯৬৮ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কারে ভূষিত হন। সোনালি কাবিন (১৯৭৩) তাকে খ্যাতির শীর্ষে পৌঁছায়। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের পর তিনি গল্প লেখার দিকে মনোযোগী হন। ১৯৭৫ সালে তার প্রথম ছোট গল্পগ্রন্থ পানকৌড়ির রক্ত প্রকাশিত হয়। ১৯৯৩ সালে বের হয় তার প্রথম উপন্যাস কবি ও কোলাহল।
    ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের পরে তিনি দৈনিক গণকণ্ঠ পত্রিকায় সহকারী সম্পাদক হিসেবে যোগ দেন। সাহিত্যপ্রতিভার স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি একুশে পদকসহ বেশ কিছু সাহিত্য পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। এর মধ্যে ফিলিপস সাহিত্য পুরস্কার, অগ্রণী ব্যাংক শিশুসাহিত্য পুরস্কার, ফররুখ স্মৃতি পুরস্কার ও জীবনানন্দ দাশ স্মৃতি পুরস্কার অন্যতম। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি পাঁচ পুত্র ও তিন কন্যার জনক। মরহুমা সৈয়দা নাদিরা বেগম তার স্ত্রী।

    ৳ 680৳ 800
  • শ্রেষ্ঠ প্রবন্ধ

    আল মাহমুদ

    আল মাহমুদ ১৯৩৬ সালের ১১ জুলাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মোড়াইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পুরো নাম মীর আব্দুস শুকুর আল মাহমুদ। হাইস্কুলে পড়াশোনাকালেই ঢাকা ও কলকাতার বিখ্যাত সাহিত্য পত্রিকাগুলোতে তার কবিতা প্রকাশিত হতে থাকে। বুদ্ধদেব বসু সম্পাদিত কবিতা পত্রিকায় তার কবিতা প্রকাশিত হলে সমসাময়িক কবি মহলে তাকে নিয়ে আলোচনার সূত্রপাত।
    প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ লোক লোকান্তর (১৯৬৩)। লোক লোকান্তর ও কালের কলস—মাত্র এই দুটি কাব্যগ্রন্থের জন্য ১৯৬৮ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কারে ভূষিত হন। সোনালি কাবিন (১৯৭৩) তাকে খ্যাতির শীর্ষে পৌঁছায়। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের পর তিনি গল্প লেখার দিকে মনোযোগী হন। ১৯৭৫ সালে তার প্রথম ছোট গল্পগ্রন্থ পানকৌড়ির রক্ত প্রকাশিত হয়। ১৯৯৩ সালে বের হয় তার প্রথম উপন্যাস কবি ও কোলাহল।
    ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের পরে তিনি দৈনিক গণকণ্ঠ পত্রিকায় সহকারী সম্পাদক হিসেবে যোগ দেন। সাহিত্যপ্রতিভার স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি একুশে পদকসহ বেশ কিছু সাহিত্য পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। এর মধ্যে ফিলিপস সাহিত্য পুরস্কার, অগ্রণী ব্যাংক শিশুসাহিত্য পুরস্কার, ফররুখ স্মৃতি পুরস্কার ও জীবনানন্দ দাশ স্মৃতি পুরস্কার অন্যতম। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি পাঁচ পুত্র ও তিন কন্যার জনক। মরহুমা সৈয়দা নাদিরা বেগম তার স্ত্রী।

    ৳ 475৳ 560
  • সংখ্যা রাজ্য ২

    সোহানুর রহমান সোহান
    জন্ম: ১৪ জানুয়ারি ১৯৯৬, বগুড়া জেলার শাজাহানপুর উপজেলার বনভেটী গ্রামে। বাবা ফরিদ উদ্দীন, মা শাবানা আক্তার। পড়াশোনা করছেন বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে।
    ছোটবেলা থেকেই গণিত ও পদার্থবিজ্ঞান ভালোবাসেন। পদার্থবিজ্ঞানের পাশাপাশি গণিতের প্রতি লেখকের অন্যরকম ভালোলাগা কাজ করে। অবসর সময়ে প্রচুর বই পড়তে ভালোবাসেন। প্রাতিষ্ঠানিক সিলেবাসের বাইরে নতুন নতুন বিষয় জানতে ও শিখতে লেখকের প্রবল আগ্রহ।
    ফেসবুক ও ব্লগে গণিত, বিজ্ঞান ছাড়াও বিভিন্ন বিষয়ে লেখালেখির পাশাপাশি ছাত্র-ছাত্রীদের গণিত-বিজ্ঞানের মজার টপিক শেখাতে ভীষণ আগ্রহী। লেখকের লেখা সর্বপ্রথম প্রকাশিত হয় ২০১৭ সালের জিরো টু ইনফিনিটি সাময়িকীতে।
    ছাত্র-ছাত্রীদের বই পড়ার প্রতি আগ্রহী করে তোলা এবং গণিত-বিজ্ঞানের মৌলিক বিষয়গুলো সবার মাঝে ছড়িয়ে দেওয়া লেখকের সীমাহীন ইচ্ছা।
    [email protected]
    facebook.com/sr.shohan.bogra

    ৳ 340৳ 400
  • সংখ্যা-রাজ্য ১

     

    সোহানুর রহমান সোহান
    জন্ম: ১৪ জানুয়ারি ১৯৯৬, বগুড়া জেলার শাজাহানপুর উপজেলার বনভেটী গ্রামে। বাবা ফরিদ উদ্দীন, মা শাবানা আক্তার। পড়াশোনা করছেন বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে।
    ছোটবেলা থেকেই গণিত ও পদার্থবিজ্ঞান ভালোবাসেন। পদার্থবিজ্ঞানের পাশাপাশি গণিতের প্রতি লেখকের অন্যরকম ভালোলাগা কাজ করে। অবসর সময়ে প্রচুর বই পড়তে ভালোবাসেন। প্রাতিষ্ঠানিক সিলেবাসের বাইরে নতুন নতুন বিষয় জানতে ও শিখতে লেখকের প্রবল আগ্রহ।
    ফেসবুক ও ব্লগে গণিত, বিজ্ঞান ছাড়াও বিভিন্ন বিষয়ে লেখালেখির পাশাপাশি ছাত্র-ছাত্রীদের গণিত-বিজ্ঞানের মজার টপিক শেখাতে ভীষণ আগ্রহী। লেখকের লেখা সর্বপ্রথম প্রকাশিত হয় ২০১৭ সালের জিরো টু ইনফিনিটি সাময়িকীতে।
    ছাত্র-ছাত্রীদের বই পড়ার প্রতি আগ্রহী করে তোলা এবং গণিত-বিজ্ঞানের মৌলিক বিষয়গুলো সবার মাঝে ছড়িয়ে দেওয়া লেখকের সীমাহীন ইচ্ছা।
    [email protected]
    facebook.com/sr.shohan.bogra

    ৳ 476৳ 560
  • সহজ কুরআন (৩য় খণ্ড)

     

    প্রথম যা জানা দরকার— আসিফ সিবগাত ভূঞা মাদ্রাসা লাইনের ছাত্র নন। তার পড়াশোনা ‘জেনারেল’ লাইনে। ছাত্র হিসেবে খুব আহামরি না হলেও তার ভালো ভালো জায়গায় পড়াশোনা করার সৌভাগ্য হয়েছে। সেইন্ট জোসেফ স্কুল থেকে এসএসসি, ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ থেকে তিনি বিবিএ সম্পন্ন করেন। এরপর তিনি বহু দিন আর পড়াশেনা না করে এখন অর্থনীতির ওপর মাস্টার্স করছেন— ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে।
    আইবিএতে পড়ার সময় তিনি এক বন্ধুর বাড়িতে ইসলামি আলোচনা শুনতে যান এবং সেখানে গিয়ে তার ইসলামের প্রতি নতুন করে ভালোবাসা জন্মায়। তিনি ধর্মীয় দায়িত্বগুলো কমবেশি পালন করার পাশাপাশি ইসলাম নিয়ে ভালো করে জানার ব্যাপারে আগ্রহ বোধ করেন। গত প্রায় ১৫ বছর তিনি ইসলামি জ্ঞান নিয়ে ধাক্কাধাক্কি করেছেন— কিছুটা অন্যের সাহায্যে, কিছুটা নিজের চেষ্টায়।
    ২০০৯ সালে তিনি কাতারে চলে যান, কাতার ইউনিভার্সিটির একটি এক বছরকালীন আরবি ভাষার কোর্স করতে। আরবি ভাষায় কিছুটা দক্ষতা অর্জন করে তিনি সেটা দিয়ে ইসলামের বিভিন্ন শাস্ত্রের প্রাথমিক পাঠ নেয়া শুরু করেন। সম্প্রতি মিশকাহ ইউনিভার্সিটি নামক একটি অনলাইন বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি নতুন করে আরেকটি ব্যাচেলর প্রোগ্রামে ইসলামিক স্টাডিজ নিয়ে পড়ছেন। এখানে মিসরের বিখ্যাত ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় আযহার ইউনিভার্সিটির বেশ কয়েকজন প্রফেসরের সান্নিধ্যে তার জ্ঞান অর্জন করার সুযোগ হয়েছে।
    ফেসবুকে আসিফ এখন এক বিরাট কুতুব। তাকে ফলো করতে পারবেন এই প্রোফাইলে—
    www.facebook.com/asifshibgat.bhuiyan

    ৳ 440৳ 520
  • সহজ কুরআন ১ম খণ্ড

     

    প্রথম যা জানা দরকার— আসিফ সিবগাত ভূঞা মাদ্রাসা লাইনের ছাত্র নন। তার পড়াশোনা ‘জেনারেল’ লাইনে। ছাত্র হিসেবে খুব আহামরি না হলেও তার ভালো ভালো জায়গায় পড়াশোনা করার সৌভাগ্য হয়েছে। সেইন্ট জোসেফ স্কুল থেকে এসএসসি, ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ থেকে তিনি বিবিএ সম্পন্ন করেন। এরপর তিনি বহু দিন আর পড়াশেনা না করে এখন অর্থনীতির ওপর মাস্টার্স করছেন— ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে।
    আইবিএতে পড়ার সময় তিনি এক বন্ধুর বাড়িতে ইসলামি আলোচনা শুনতে যান এবং সেখানে গিয়ে তার ইসলামের প্রতি নতুন করে ভালোবাসা জন্মায়। তিনি ধর্মীয় দায়িত্বগুলো কমবেশি পালন করার পাশাপাশি ইসলাম নিয়ে ভালো করে জানার ব্যাপারে আগ্রহ বোধ করেন। গত প্রায় ১৫ বছর তিনি ইসলামি জ্ঞান নিয়ে ধাক্কাধাক্কি করেছেন— কিছুটা অন্যের সাহায্যে, কিছুটা নিজের চেষ্টায়।
    ২০০৯ সালে তিনি কাতারে চলে যান, কাতার ইউনিভার্সিটির একটি এক বছরকালীন আরবি ভাষার কোর্স করতে। আরবি ভাষায় কিছুটা দক্ষতা অর্জন করে তিনি সেটা দিয়ে ইসলামের বিভিন্ন শাস্ত্রের প্রাথমিক পাঠ নেয়া শুরু করেন। সম্প্রতি মিশকাহ ইউনিভার্সিটি নামক একটি অনলাইন বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি নতুন করে আরেকটি ব্যাচেলর প্রোগ্রামে ইসলামিক স্টাডিজ নিয়ে পড়ছেন। এখানে মিসরের বিখ্যাত ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় আযহার ইউনিভার্সিটির বেশ কয়েকজন প্রফেসরের সান্নিধ্যে তার জ্ঞান অর্জন করার সুযোগ হয়েছে।
    ফেসবুকে আসিফ এখন এক বিরাট কুতুব। তাকে ফলো করতে পারবেন এই প্রোফাইলে—
    www.facebook.com/asifshibgat.bhuiyan

    ৳ 255৳ 300
  • সহজ কুরআন ২য় খণ্ড

    প্রথম যা জানা দরকার— আসিফ সিবগাত ভূঞা মাদ্রাসা লাইনের ছাত্র নন। তার পড়াশোনা ‘জেনারেল’ লাইনে। ছাত্র হিসেবে খুব আহামরি না হলেও তার ভালো ভালো জায়গায় পড়াশোনা করার সৌভাগ্য হয়েছে। সেইন্ট জোসেফ স্কুল থেকে এসএসসি, ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ থেকে তিনি বিবিএ সম্পন্ন করেন। এরপর তিনি বহু দিন আর পড়াশেনা না করে এখন অর্থনীতির ওপর মাস্টার্স করছেন— ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে।
    আইবিএতে পড়ার সময় তিনি এক বন্ধুর বাড়িতে ইসলামি আলোচনা শুনতে যান এবং সেখানে গিয়ে তার ইসলামের প্রতি নতুন করে ভালোবাসা জন্মায়। তিনি ধর্মীয় দায়িত্বগুলো কমবেশি পালন করার পাশাপাশি ইসলাম নিয়ে ভালো করে জানার ব্যাপারে আগ্রহ বোধ করেন। গত প্রায় ১৫ বছর তিনি ইসলামি জ্ঞান নিয়ে ধাক্কাধাক্কি করেছেন— কিছুটা অন্যের সাহায্যে, কিছুটা নিজের চেষ্টায়।
    ২০০৯ সালে তিনি কাতারে চলে যান, কাতার ইউনিভার্সিটির একটি এক বছরকালীন আরবি ভাষার কোর্স করতে। আরবি ভাষায় কিছুটা দক্ষতা অর্জন করে তিনি সেটা দিয়ে ইসলামের বিভিন্ন শাস্ত্রের প্রাথমিক পাঠ নেয়া শুরু করেন। সম্প্রতি মিশকাহ ইউনিভার্সিটি নামক একটি অনলাইন বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি নতুন করে আরেকটি ব্যাচেলর প্রোগ্রামে ইসলামিক স্টাডিজ নিয়ে পড়ছেন। এখানে মিসরের বিখ্যাত ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় আযহার ইউনিভার্সিটির বেশ কয়েকজন প্রফেসরের সান্নিধ্যে তার জ্ঞান অর্জন করার সুযোগ হয়েছে।
    ফেসবুকে আসিফ এখন এক বিরাট কুতুব। তাকে ফলো করতে পারবেন এই প্রোফাইলে—
    www.facebook.com/asifshibgat.bhuiyan

    ৳ 340৳ 400
  • সহজ কুরআন ৪

    প্রথম যা জানা দরকার— আসিফ সিবগাত ভূঞা মাদ্রাসা লাইনের ছাত্র নন। তার পড়াশোনা ‘জেনারেল’ লাইনে। ছাত্র হিসেবে খুব আহামরি না হলেও তার ভালো ভালো জায়গায় পড়াশোনা করার সৌভাগ্য হয়েছে। সেইন্ট জোসেফ স্কুল থেকে এসএসসি, ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ থেকে তিনি বিবিএ সম্পন্ন করেন।
    ইউনিভার্সিটি জীবনের শুরুর দিকে তিনি এক বন্ধুর বাড়িতে ইসলামি আলোচনা শুনতে যান এবং সেখানে গিয়ে তার ইসলামের প্রতি নতুন করে ভালোবাসা জন্মায়। তিনি ধর্মীয় দায়িত্বগুলো কমবেশি পালন করার পাশাপাশি ইসলাম নিয়ে ভালো করে জানার ব্যাপারে আগ্রহ বোধ করেন। ফলে তিনি বিভিন্ন অনলাইন এবং অফলাইন প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করা শুরু করেন ইসলামকে ভালোভাবে বোঝার জন্য।
    ২০০৯ সালে তিনি কাতারে চলে যান, কাতার ইউনিভার্সিটির একটি এক বছরকালীন আরবি ভাষার কোর্স করতে। আরবি ভাষায় কিছুটা দক্ষতা অর্জন করে তিনি সেটা দিয়ে ইসলামের বিভিন্ন শাস্ত্রের প্রাথমিক পাঠ নেওয়া শুরু করেন। ২০২০ সালে তিনি ইসলামিক স্টাডিজের ওপর মাস্টার্স ডিগ্রি গ্রহণ করেছেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ থেকে।
    ফেসবুকে তাকে ফলো করতে পারবেন এই প্রোফাইলে—
    www.facebook.com/asifshibgat.bhuiyan

    ৳ 476৳ 560
  • সহজ ভাষায় অ্যালগরিদম

    এহ্‌সানুল ইসলাম’র জন্ম ও শৈশব ময়মনসিংহে।
    চট্টগ্রামে ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থাতেই প্রোগ্রামিংয়ের ভূত চেপে বসে লেখকের মাথায়। কলেজ-জীবন শেষে ফুল ফ্রি স্কলারশিপ পেয়ে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে চলে যান দেশের বাইরে।
    বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষ থেকেই নানাবিধ গবেষণামূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়েন তিনি। স্বপ্ন দেখেছিলেন যেন মায়ের ভাষা বাংলাতেও প্রোগ্রামিংকে সবার কাছে সহজ করে তুলে ধরতে পারেন। লেখালেখির সূত্রপাত ঘটে ঠিক তখনই। ব্লগিংয়ের পাশাপাশি প্রোগ্রামিং নিয়ে দুইটি ই-বুকও লিখে ফেলেন তিনি। সহজ ভাষায় অ্যালগরিদম বইটি লেখকের অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২২-এ প্রকাশিত প্রথম বই।
    আত্মতৃপ্তি এবং কাজের স্বার্থেই করেছেন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, প্রোডাক্ট ম্যানেজমেন্ট, সমসাময়িক কন্টেন্ট মেকিং থেকে শুরু করে মার্কেট এনালাইজিং এবং গ্রাফিক্স ডিজাইনিং-সহ নানাবিধ কাজ।

    ৳ 238৳ 280
  • সহজ ভাষায় পাইথন ৩

    মাকসুদুর রহমান মাটিন বাংলাদেশের মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলনের একজন উৎসাহীকর্মী, পরিচিত মুখ। আট বছর ধরে সাধ্য অনুযায়ী সেবা দিয়ে যাচ্ছেন দেশীয় ওপেন সোর্স কমিউনিটিকে।
    কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে যুক্ত ছিলেন বাংলাদেশ ওপেনসোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন) ও উবুন্টু বাংলাদেশের সঙ্গে। এক সময় অবদান রেখেছেন মজিলা ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন প্রজেক্টে। বর্তমানে লিনাক্স কার্নেল ভিত্তিকমুক্ত অপারেটিং সিস্টেম ‘উবুন্টু’ এবং পাইথন প্রোগ্রামিংকে আমাদের দেশের মানুষের কাছে জনপ্রিয় করে তোলার জন্য নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছেন।
    দিনের বেশিরভাগ সময় ব্যয় করেন ক্লাউড ইনফ্রাস্ট্রাকচার আর্কিটেকচার, অটোমেশন ও সিকিউরিটির পেছনে। অবদান রাখছেন বিভিন্ন জনপ্রিয় ওপেন সোর্সপ্রজেক্টে। পাশাপাশি চলছে অণুগল্প, কবিতা ও প্রযুক্তিবিষয়ক লেখালেখি। বর্তমানে টেলিনর হেলথ বাংলাদেশে ডেভঅপস ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত।
    অবসর সময়ে বইপড়া, রান্না করা এবং বিভিন্নস্তরের মানুষের জীবন-দর্শন গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করা তার শখ।

    ৳ 425৳ 500
  • সহজ ভাষায় স্পোকেন ইংলিশ

    সাখাওয়াত হোসেন বাবার চাকরির সুবাদে ছোটবেলা থেকে বড় হন ক্যান্টনমেন্ট এরিয়ায়। ব্যবসায়ী শিক্ষায় একাডেমিক পড়াশোনা করা অবস্থাতেই ইংরেজি ভাষার প্রতি তাঁর ভালোলাগা এবং ভালোবাসা সৃষ্টি হয়। ২০০৩ সালে IELTS পরীক্ষায় স্কোর ৭ পাওয়ার পরে আরম্ভ হয় IELTS, Spoken English, Creative Writing-সহ ইংরেজি ভাষা শিক্ষার ওপরে ঢাকার বিভিন্ন নামকরা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা।
    দীর্ঘদিন কাজ করেছেন বিভিন্ন করপোরেট হাউজ, কাস্টমার কেয়ার সেন্টার ও কল সেন্টারে ফরেইন ডেলিগেটসদের সাথে। ২০১২ সালে নিজের জেলা শহর গাজীপুরে গড়ে তোলেন নিজের প্রতিষ্ঠান “TalentHut Language Institute”। ২০১৬-তে একই নামে YouTube channel চালু করেন, যার মাধ্যমে অনেক দূরের ছাত্রছাত্রীদের দিচ্ছেন ইংরেজি শিক্ষা।
    এই মুহূর্তে Corporate Business English Training, Free ESL Training Worldwide, Student Skill Awareness Program-এর মতো কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছেন, যা আগামীতে এই দেশের শিক্ষার্থীদের Global employment-এ অনেক বড় ভূমিকা রাখবে।

    ৳ 340৳ 400
  • সহজ হিসাববিজ্ঞান

    পুরো নাম মোহাম্মদ মঈন উদ্দিন রেজা (নাদিম)। সবার কাছে পরিচিত নাদিম নামে। জন্ম ১৯৮৯ সালের ১৭ ডিসেম্বর ঢাকার সবচেয়ে কাছের মফস্বল শহর বংশী নদী বিস্তৃত সাভার পৌর এলাকায়। বাবা মরহুম মো. আব্দুস সালাম ও মা মরহুমা মনোয়ারা বেগম। চার ভাই ও পাঁচ বোনের মধ্যে সবচেয়ে ছোট সন্তান নাদিম জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল ও কলেজ থেকে ২০০৭ সালে মাধ্যমিক পাস করেন। ঢাকা সিটি কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় মেধার স্বাক্ষর রেখে ২০০৯-১০ সেশনে ভর্তি হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগে। লেখাপড়ায় অসাধারণ ফলাফলের স্বীকৃতিস্বরূপ ডিনস অ্যাওয়ার্ডসহ ২০১৩ সালে বিবিএ এবং একই বিভাগ থেকে ২০১৪ সালে এমবিএ ডিগ্রি অর্জন করেন। ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা অ্যাকাউন্টিং ফোরামের প্রেসিডেন্ট হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন ছাত্র অবস্থায়।
    ২০১৫ সাল থেকে বাংলাদেশের প্রথম সারির পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ‘বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিইউপি)’-তে একজন শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। বর্তমানে তিনি বিইউপিতে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কাজ করছেন। একাডেমিক দায়িত্বের পাশাপাশি নাদিম বিইউপিতে ছাত্রছাত্রীদের বিভিন্ন ক্লাবের মডারেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এ ছাড়া বিভিন্ন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে তার বেশ কয়েকটি মৌলিক গবেষণার কাজ। ২০১৯ সালের অমর একুশে বই মেলায় নাদিমের প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘শহরের গল্পে জোনাকির কবিতা’ প্রকাশিত হয়।
    লেখকের সহধর্মিণী তাহমিনা আক্তার পেশায় একজন কূটনীতিক। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন সহকারী সচিব হিসেবে কর্মরত আছেন।

    ৳ 187৳ 220
  • সাইরাস

    ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর শেষ করেছেন। বিশেষ আগ্রহের আঙিনা মিথোলজি এবং তুলনামূলক ধর্মতত্ব।
    ই-মেইল: [email protected]

    ৳ 290৳ 340
  • সাত ১৩ আরও ১২

    ছবিতে: (ডান থেকে, সামনে) মুনির হাসান, সকাল রায়
    (ডান থেকে, পেছনে) মাহ্‌তাব হোসাইন, আহমেদ শাহরিয়ার, আশরাফুল আল শাকুর
    মুনির হাসান
    সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি
    প্রধান, যুব কার্যক্রম ও অনুষ্ঠান, প্রথম আলো
    সকাল রায়
    তড়িৎ ও ইলেক্ট্রনিক কৌশল, বুয়েট
    একাডেমিক কাউন্সিলর, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি
    সিনিয়র ম্যাথ অলিম্পিয়াড কনসালটেন্ট,
    প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়
    আহমেদ শাহরিয়ার
    এরোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, এমআইএসটি
    একাডেমিক মেন্টর, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি
    সিনিয়র ম্যাথ অলিম্পিয়াড কনসালটেন্ট,
    প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়
    আশরাফুল আল শাকুর
    পুরকৌশল, বুয়েট
    একাডেমিক কাউন্সিলর, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি
    কনসালটেন্ট ফর ম্যাথ অলিম্পিয়াড
    প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়
    মাহ্‌তাব হোসাইন
    কম্পিউটার প্রকৌশল, ইউল্যাব
    একাডেমিক মেন্টর, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি
    কনসালটেন্ট ফর ম্যাথ অলিম্পিয়াড
    প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়

    ৳ 323৳ 380
  • সাদা খাম

     


    জন্ম ১৯৮২ সালে, গাইবান্ধায়। সেখানেই উচ্চমাধ্যমিক পর্যন্ত লেখাপড়া। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় এমএ।
    উৎসবপ্রিয়। কোনো উৎসব ঘিরে যখন মানুষ একত্র হয়, সবার প্রাণে প্রাণ মেলাতে ভালোবাসেন। মনে মনে সে আনন্দ উপভোগ করেন। সবুজ পছন্দের রং বলে প্রকৃতি তার এত প্রিয়। প্রকৃতির ঔদার্যে প্রতিনিয়ত মুগ্ধ হন তিনি।
    ‘সাদা খাম’ লেখকের দ্বিতীয় উপন্যাস। প্রথম উপন্যাস ‘দীঘল জলে নিমগ্নতা’ প্রকাশ হয় ২০২০ বইমেলায়। প্রথম গল্পগ্রন্থ: ‘সুতপার হাই হিল’ প্রকাশিত হয় ২০১৮ বইমেলায়।

    ৳ 187৳ 220