Showing all 4 results

  • আমি একজন সেলসম্যান!

    তানভীর শাহরিয়ার রিমন, একজন সৃষ্টিশীল মানুষ হিসেবে তার পরিচিতি। স্বপ্ন দেখেন এমন এক নান্দনিক সময়ের, যে সময় হবে কবিতা আর কলমের। জন্ম আর বেড়ে ওঠা তার শ্যামল শহর সিলেটে।
    লেখালেখিতে হাতেখড়ি স্কুলজীবনে। তবে কলেজের গণ্ডি পেরিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যখন সমুদ্র শহর চট্টগ্রামে আসেন তিনি, তখন তার লেখালেখির ব্যাপ্তি এবং গণ্ডি সীমানা ছাড়ায়। দুহাতে লিখতে শুরু করেন তিনি। প্রথম আলোর বিভিন্ন ফিচার পাতা, দৈনিক
    আজাদীর সাহিত্য পাতা, চট্টগ্রাম মঞ্চ, সিলেটের ডাকসহ বিভিন্ন পত্রিকায় তখন তার সরব বিচরণ। চট্টগ্রামের সাহিত্য-ঙ্গনে তিনি তখন অতি পরিচিত মুখ। জনপ্রিয় ছোট কাগজ সাম্পানের সম্পাদক হিসেবেও তিনি খ্যাতি কুড়ান তখন। তার প্রকাশিত গ্রন্থের মাঝে পাগলা ঘণ্টি এবং ক্ষ্যাপা বাউল উল্লেখযোগ্য।
    প্রেম, ভালোবাসা, বন্ধুতা, অন্তর্গত সম্পর্ক, সময়ের ক্ষয়ে যাওয়া রূপ বেশ সাবলীলভাবে উঠে আসে তার লেখনীতে। শব্দচয়নে তার নিজস্বতা, বৈচিত্র্য তৈরি করেছে তার একটা নিজস্ব পাঠক শ্রেণি।
    কম্পিউটারবিজ্ঞান ও প্রকৌশলে স্নাতক করে ব্যবসায় প্রশাসনে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। বর্তমানে তিনি দেশের একজন শীর্ষস্থানীয় করপোরেট ব্যক্তিত্ব। একটি শীর্ষ রিয়েল এস্টেট প্রতিষ্ঠানের সিইও। এ ছাড়া তিনি একজন পাবলিক স্পিকার। দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে নলেজ ইনিশিয়েটিভগুলোতে কি-নোট স্পিকার হিসেবে নিয়মিত কথা বলছেন।
    ব্যক্তি জীবনে তিনি বিবাহিত। এক পুত্র ও এক কন্যাসন্তানের জনক।

    ৳ 170৳ 200
  • নন-মার্কেটারদের জন্য মার্কেটিং

    জন্ম ও বেড়ে ওঠা, স্থায়ী বসবাস ঢাকায়। ধানমন্ডি গভ. বয়েজ থেকে মাধ্যমিক ও ঢাকা সিটি কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিকের পাঠ চুকিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় পাড়ি জমান উচ্চতর শিক্ষালাভের উদ্দেশ্যে। সেখান থেকে পড়াশোনা শেষ করে দেশের মাটিতে ফিরে এসে মার্কেটিংয়ে এমবিএ করেছেন। ভোক্তা সন্তুষ্টির ওপর তার একটি একাডেমিক গবেষণাপত্র রয়েছে। মার্কেটিং কর্মকর্তা ছিলেন দেশীয় টেকনোলজি স্টার্টআপ, ই-কমার্স, মার্কেটিং এজেন্সি এবং দেশি-বিদেশি কয়েকটি সফটওয়্যার কোম্পানিতে। বর্তমানে ডিজিটাল মার্কেটিং পেশায় রয়েছেন। নিজস্ব ডিজিটাল মার্কেটিং কনসালট্যান্সি ফার্মও রয়েছে।
    প্রাইমারিতে পড়াকালীন প্রলয় হাসানের লেখালেখিতে হাতেখড়ি। ২০০৭ সাল থেকে অনলাইনে লেখালেখি করছেন।
    ‘নন-মার্কেটারদের জন্য মার্কেটিং’ ছাড়াও ব্র্যান্ডিংয়ের ওপর এ বছরই তার আরেকটি গ্রন্থ প্রকাশিতব্য। মার্কেটিং-ব্র্যান্ডিং নিয়ে পড়াশোনা ও লেখালেখি ভীষণ উপভোগ করেন। ব্যক্তিজীবনে বইপোকা ও নিভৃতচারী মানুষ। অবসরে কবিতা ও বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনিতে বুঁদ হয়ে থাকতে পছন্দ করেন। প্রযুক্তিপণ্য ও সমুদ্র ভালোবাসেন।

    ৳ 306৳ 360
  • বিজনেস ইন্টেলিজেন্স

    এনামুল হক একজন ব্রিটিশ-বাংলাদেশি ডিজিটাল প্রযুক্তিবিষয়ক লেখক, গবেষক এবং একজন ব্যবস্থাপনা পরামর্শদাতা, যিনি মাইক্রোসফট, ক্যাপজেমিনি, নকিয়া, এইচসিএল টেকনোলজির মতো কোম্পানিগুলোর পাশাপাশি ইউনাইটেড নেশনস হাইকমিশনার ফর রিফিউজিস (UNHCR) এবং ইন্টারন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়ন (ITU)-এর মতো আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর সঙ্গে কাজ করেছেন।
    তিনি ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন, ক্লাউড অ্যাডপশন, এআই-ড্রাইভেন আরপিএ (ইন্টেলিজেন্ট প্রসেস অটোমেশন) এবং সার্ভিস ইন্টিগ্রেশন এবং ম্যানেজমেন্ট নিয়ে ফরচুন ৫০০ কোম্পানির সঙ্গে কাজ করেছেন। তিনি আইটি সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট, ক্লাউড কমপিউটিং, এআই, আইওটি এবং বিগ ডেটা অ্যানালিটিকস নিয়ে লিখেছেন। আইটি রূপান্তরে তাঁর ২৬ বছরের সমৃদ্ধ অভিজ্ঞতা রয়েছে।
    এনামুল হক লন্ডন ক্যাম্পাসের ইউনিভার্সিটি অব কভেন্ট্রিতে অতিথি লেকচারার হিসেবে এমবিএ শিক্ষার্থীদের মধ্যে শিল্পের জ্ঞান শেয়ার করেন। তিনি বিভিন্ন সংবাদপত্র, ম্যাগাজিন এবং অন্যান্য প্রকাশনার জন্য লেখক হিসেবেও ব্যাপকভাবে কাজ করেছেন। এনামুল হক বহুভাষিক (বাংলা, ফরাসি ও ইংরেজি) এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, সুইজারল্যান্ড, ফিনল্যান্ড, সংযুক্ত আরব আমিরাত, যুক্তরাজ্য, ভারত, জার্মানিসহ অনেক দেশে বসবাস এবং কাজ করেছেন।
    এনামুল হক সুইস ফেডারেল ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (ইপিএফএল) থেকে গণিত এবং বিশ্লেষণ (কোর্স ডি ম্যাথমেটিকস স্পেশালিস্ট) এবং জেনেভা বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞানের স্থাপত্য এবং প্রযুক্তি (লাইসেন্স এন সায়েন্স ইনফরম্যাটিক) অধ্যয়ন করেন। তিনি হেলসিঙ্কি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডেটা সায়েন্স, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা এবং মেশিন লার্নিংয়ে ডিপ্লোমা করেছেন। তিনি সম্প্রতি নেতৃত্ব এবং পরামর্শের ওপর হার্ভার্ড বিজনেস স্কুল সার্টিফিকেশন সম্পন্ন করেছেন।
    enamulhaque.co.uk

    ৳ 272৳ 320
  • শরবতে বাজিমাত

    মুনির হাসান

    মুনির হাসানের জন্ম চট্টগ্রামে। পড়ালেখাও সেখানেই— সেন্ট মেরিজ, মুসলিম এডুকেশন সোসাইটি, মুসলিম হাইস্কুল ও চট্টগ্রাম কলেজ। এরপর বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে। পাস করে দীর্ঘদিন সেখানেই কর্মজীবন— পরে জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচি, বিশ্বব্যাংক ইত্যাদিতে কাজ করেছেন।
    দৈনিক সংবাদের সাপ্তাহিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ফিচার পাতায় লেখালেখির মাধ্যমে সাহচর্য পেয়েছেন বিজ্ঞান-লেখক ও বিজ্ঞানকর্মী আ. মু. জহুরুল হক, আবদুল্লাহ আল-মুতী, শরফুদ্দিন এবং এ আর খানের। তাদের অনুপ্রেরণায় নিজেকে বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণের কর্মী হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা করেছেন। ১৯৯৫-৯৮ সালে ভোরের কাগজ এবং ১৯৯৮ সাল থেকে অদ্যাবধি দৈনিক প্রথম আলোয় বিজ্ঞান ও গণিতবিষয়ক ফিচার পাতার সম্পাদনা

    ৳ 170৳ 200