Showing all 5 results

  • আমার ভাবনায় সেলসম্যানশিপ

    এম আতাউর রহমান রোজেল। বেড়ে ওঠা কুমিল্লায়, ভগবান সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক শেষে উচ্চশিক্ষার উদ্দেশ্যে ঢাকায় আগমন। বুয়েট থেকে তড়িৎ প্রকৌশল বিষয়ে বিএসসি করেছেন। বলা হয়, বয়স বাড়ার সাথে সাথে প্রত্যেকেই নিজের থেকে বিচ্ছিন্ন হতে শুরু করে। নিজের অন্তর্নিহিত স্পেশালিটি কোন ক্ষেত্রে জীবনকে কীভাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে চায়— এসব কেবল নির্লিপ্ত ফ্যান্টাসিতেই পরিণত হয় এক সময়ে। এই কনভেনশনাল চিন্তাকে রীতিমতো চ্যালেঞ্জ জানিয়ে তিনি এগিয়েছেন পাথুরে পথে, সেলসম্যানশিপ তথা নিজের প্রকৃতিপ্রদত্ত গিফটকে ক্যারিয়ারে সফলভাবে প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যে ঢাকা ইউনিভার্সিটি থেকে মার্কেটিং বিষয়ে এমবিএ করেছেন পরবর্তী সময়ে। ইঞ্জিনিয়ারিং পেশা থেকে সেলস ও মার্কেটিং ক্যারিয়ার, সাফল্যের সাথে পনের বছরের অভিজ্ঞতা শেষে বর্তমানে ফিলামেন্ট ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড-এ চেয়ারম্যান পদে অধিষ্ঠিত রয়েছেন। পনের বছরের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে তিনি যুক্ত ছিলেন সিঙ্গাপুর বাংলাদেশ লিমিটেড, টেকনো ওয়ার্থ এ্যাসোসিয়েটস লিমিটেড ও অলিম্পাস সিঙ্গাপুর প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানিতে। শৈশব থেকেই সবচাইতে কাছের মানুষ ছিলেন মা ও বাবা। সংগ্রামের সময়গুলোতে আস্থা-ভরসা-স্নেহের উষ্ণতায় জড়িয়েছেন একে অপরকে। জীবন যাত্রার প্রতিটি বাঁকেই তাঁদের দ্বারা প্রভাবিত হয়েছেন বারে বারে। পারিবারিক বন্ধনের ছায়ার আস্তরণে ছোট ভাই সোহেলের প্রতি সন্তানসম স্নেহ ধারণ করেছেন সবসময়েই। নিজের শিশুপুত্রের সাথে সম্পর্কের রসায়নেও তাদেরই খুঁজে বেড়ান অবচেতনে, এখনও! সহধর্মিণীর অসীম অনুপ্রেরণা ক্যারিয়ার ও ব্যক্তি জীবনের উত্থান-পতনকে করেছে স্বস্তির।

    ৳ 288৳ 360
  • ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্স

    সায়েদ আশরাফ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগ থেকে ইন্ডাস্ট্রিয়াল-অর্গানাইজেশনাল সাইকোলজি নিয়ে পড়াশোনা শেষে কর্মজীবনে একদিকে যেমন বিশেষ শিশুদের নিয়ে কাজ করছেন, অন্যদিকে ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্স, স্ট্রেসের মত বিষয় নিয়ে বহুব্রীহি, আপস্কিল-সহ একাধিক অনলাইন প্ল্যাটফর্মে কোর্স ও ট্রেনিং করাচ্ছেন। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন সময়ে ইনোভেশন ফর পভার্টি একশন, রাইজ আপ ল্যাবস, গ্রেস, থিংকডেমি সহ অন্যান্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে সাইকোলজিস্ট, ট্রেইনার ও কনসালট্যান্ট হিসেবে কাজ করেছেন।

    নাসরিন সুলতানা শীলা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করে বর্তমানে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন। পাশাপাশি বহুব্রীহি-সহ একাধিক ই-লার্নিং প্ল্যাটফর্মে কোর্স-ইন্সট্রাকটর হিসেবেও কাজ করছেন। তিনি লেখালেখি করতে খুব ভালোবাসেন। বেশ কয়েক বছর ধরে মধুপোক-এর সাথে যুক্ত আছেন অনুবাদক ও সহকারী সম্পাদক হিসেবে। ময়ূরপঙ্খি প্রকাশনা থেকে তার অনূদিত সাগর তীরে, চিতা আর ছাগল এবং রংধনুর শেষ কোথায়? বইগুলো প্রকাশিত হয়েছে।

    ৳ 288৳ 360
  • ঝংকার মাহবুবের ছয়টি বই

    অর্ধদশক ধরে সিরিয়াসলি লেখালেখি করে নিজেকে অতুলনীয় করে তুলেছেন ঝংকার মাহবুব।
    লেখক বুদ্ধি করে বলেন, অতুলনীয়। যাতে অন্য কেউ তুলনা করতে না আসে। সেই একই সুরে ক্লোজআপ-মার্কা হাসি দিয়ে দাবি করেন, তিনি খেলাধুলার ফার্স্ট বয়। পরে এক সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি থেকে জানা যায়, কাজিনদের সাথে কুতকুত খেলায় উনি নিয়মিতই লাস্ট হতেন। তবে কাজিনদের মধ্যে উনি ছাড়া আর কোনো ছেলে না থাকায় টেকনিক্যালি তিনিই ফার্স্ট বয়।
    মাঝবেলায় এসে খেলাধুলার ফার্স্ট বয় হওয়ার প্যারা না থাকায় বুয়েটের IPE ডিপার্টমেন্টের ইতিহাসে প্রথম জিপিএ ৪.০০-এর মধ্যে ৪.০০ পান। বুয়েট থেকে পাস করার পর ৩ বছর স্টার্টআপ করে, নর্থ ড্যাকোটা স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে মাস্টার্সও করেন। বর্তমানে স্ত্রী কারিনা ইসলামের চাকরিকে অজুহাত হিসেবে কাজে লাগিয়ে টেক্সাসের ডালাস শহরে বসে শিকাগোর নিলসেন কোম্পানিতে রিমোটলি সিনিয়র ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে কামলা খাটেন।

    ৳ 1,504
  • ঝংকার মাহবুবের মোটিভেশনাল তিনটি বই

    অর্ধদশক ধরে সিরিয়াসলি লেখালেখি করে নিজেকে অতুলনীয় করে তুলেছেন ঝংকার মাহবুব।
    লেখক বুদ্ধি করে বলেন, অতুলনীয়। যাতে অন্য কেউ তুলনা করতে না আসে। সেই একই সুরে ক্লোজআপ-মার্কা হাসি দিয়ে দাবি করেন, তিনি খেলাধুলার ফার্স্ট বয়। পরে এক সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি থেকে জানা যায়, কাজিনদের সাথে কুতকুত খেলায় উনি নিয়মিতই লাস্ট হতেন। তবে কাজিনদের মধ্যে উনি ছাড়া আর কোনো ছেলে না থাকায় টেকনিক্যালি তিনিই ফার্স্ট বয়।
    মাঝবেলায় এসে খেলাধুলার ফার্স্ট বয় হওয়ার প্যারা না থাকায় বুয়েটের IPE ডিপার্টমেন্টের ইতিহাসে প্রথম জিপিএ ৪.০০-এর মধ্যে ৪.০০ পান। বুয়েট থেকে পাস করার পর ৩ বছর স্টার্টআপ করে, নর্থ ড্যাকোটা স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে মাস্টার্সও করেন। বর্তমানে স্ত্রী কারিনা ইসলামের চাকরিকে অজুহাত হিসেবে কাজে লাগিয়ে টেক্সাসের ডালাস শহরে বসে শিকাগোর নিলসেন কোম্পানিতে রিমোটলি সিনিয়র ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে কামলা খাটেন।

    ৳ 688
  • সাফল্যের রুট কজ এনালিসিস

    মুবির চৌধুরী একজন উদ্যোক্তা, কর্পোরেট কনসালটেন্ট, ও সফট স্কিলস ট্রেনার। জন্ম ১৯৮১ সালে, আদি নিবাস সিলেট জেলার গোলাপগঞ্জ থানার ঢাকা দক্ষিণ ইউনিয়নের কানিশাইল গ্রামে। বর্তমানে ঢাকায় স্থায়ীভাবে বসবাসরত।
    তিনি ন্যাশনাল ব্যাংক পাবলিক স্কুল থেকে ১৯৯৬ সালে এসএসসি, নটরডেম কলেজ থেকে ১৯৯৮ সালে এইচএসসি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ থেকে বিবিএ ও এক্সিকিউটিভ এমবিএ পাস করেন যথাক্রমে ২০০৩ ও ২০০৯ সালে।
    দীর্ঘ ১৮ বছরের পেশাজীবী জীবনের প্রথম ১০+ বছর গড়েছেন কর্পোরেট ক্যারিয়ার। ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোতে খণ্ডকালীন কাজ করে কর্মজীবন শুরু করে পরবর্তীতে গালফ অয়েল বাংলাদেশ এবং ব্যাংক এশিয়াতে কিছুদিন কাজ কর থিতু হোন গ্রামীণফোনে; সেখানেই কাজ করেন সাড়ে ৯ বছর। চাকরি ছেড়ে ২০১৪ সালে পরিণত হন একজন পুরোদস্তুর উদ্যোক্তায়। ২০১২ সাল থেকে তিনি এই পর্যন্ত পাঁচটি ব্যবসা শুরু করেছেন এবং তাঁর তৈরি করা স্টার্টআপ পেয়েছে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন পুরস্কার ও সম্মাননা।
    তিনি ‘সক্রিয় টেকনোলজিস’ নামক একটি আইটি প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ‘বিয়ন্ড রেশন্যাল’ নামক একটি ম্যানেজমেন্ট কনসালটেন্সি প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা ও লিড কনসালট্যান্ট, ফ্রিল্যান্স সফট স্কিলস ট্রেনার, একাধিক স্টার্টআপে বিনিয়োগকারী ও পরামর্শদাতা এবং বেসিস (BASIS: Bangladesh Association for Software & Information Services)-এর স্টার্টআপ-সংক্রান্ত স্ট্যান্ডিং কমিটির কো-চেয়ারপার্সন।
    ব্যক্তিগত জীবনের তিনি তার বাবা-মায়ের পাঁচ সন্তানের মধ্যে চতুর্থ, বিবাহিত এবং এক সন্তানের জনক।

    ৳ 320৳ 400