Showing all 13 results

  • অ্যালগরিদম ডিজাইন

    জন্ম ও বেড়ে ওঠা সাতক্ষীরাতে। ছোটকাল থেকেই আড্ডাবাজি ও খেলাধুলাতে চ্যাম্পিয়ন। কোডিংয়ের ওপর ঝোঁকটা ছিল প্রবল। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগে ভর্তি হবার পর গণিতকে ভালোলাগা ও ভালোবাসার শুরু।
    দ্বিতীয় বর্ষে থাকতেই গবেষণাধর্মী কর্মকাণ্ডে হাতেখড়ি। সেখান থেকে গবেষণাটা নেশায় পরিণত হয়। ম্যাথমেটিক্যাল মডেলিং, ডাটা সায়েন্স ও মেশিন লার্নিং নিয়ে বর্তমানে কয়েকটি গবেষণাকর্মে রত।

    ৳ 318৳ 375
  • আরডুইনোতে হাতেখড়ি

    মুনেম শাহরিয়ার
    রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগ থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন। স্কুল ও কলেজ-জীবন থেকেই লেখালিখি, চিত্রাঙ্কন, বিতর্ক, গান, গিটার, আবৃত্তি, উপস্থাপনা নিয়ে থেকেছেন, কাজ করেছেন সাহিত্য-পত্রিকা এবং বিভিন্ন সেবা সংগঠনের সঙ্গে।
    তরুণ শিক্ষার্থীদের মাঝে প্রযুক্তি-শিক্ষার প্রসারের স্বপ্নে সহ-প্রতিষ্ঠা করেছেন Arduino Community Bangladesh (ACB)। বর্তমানে সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং চিফ স্ট্র্যাটেজি অফিসার হিসেবে Tinkers Technologies Ltd-এ কাজ করছেন।
    facebook.com/munem.shahriar


    রুহুল আমীন
    পড়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে। ছোটবেলা থেকেই ইলেক্ট্রনিক্স ও কম্পিউটার-ভক্ত।
    বাংলাদেশে আরডুইনো চর্চা নিয়ে অনেক স্বপ্ন থেকে সহ-প্রতিষ্ঠা করেছেন আরডুইনো কমিউনিটি বাংলাদেশ (এসিবি)। তারা দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রযুক্তি-শিক্ষা ছড়িয়ে দিতে সাহায্য করে যাচ্ছেন। কর্মজীবনে তিনি ‘টিংকার্স টেকনোলজিস লিমিটেড’-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার হিসেবে কাজ করছেন।
    [email protected]


    সাদিয়া কবির দিনা
    জন্ম ও বেড়ে ওঠা ঢাকার শহুরে ব্যস্ততা আর দালানের মিছিলে। মলাটবন্দি কালো হরফ আর আকাশভরা নক্ষত্ররা তাকে বাঁচিয়ে রাখে নতুন একটা দিনের রসদ যোগান দিয়ে। স্বপ্ন দেখেন ঘুরে বেড়াবেন বিশ্বের কোনায় কোনায় আর যে দেশ আজন্ম তাকে লালন করছে তার জন্য যথাসম্ভব কিছু করে যাবেন।
    নিজেকে একজন শৌখিন লেখক এবং প্রভাবশালী উদ্যোক্তা হিসেবে কল্পনা করতে ভালোবাসেন। বর্তমানে হাংগেরির ইউনিভার্সিটি অফ ডেব্রেসেনে মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করছেন।
    [email protected]

    ৳ 272৳ 320
  • গল্পে স্বল্পে প্রোগ্রামিং

    মইনুল রাজু
    জন্ম ৫ নভেম্বর, ১৯৮১ সালে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বামনীতে। বামনী উচ্চবিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক শেষ করে চলে আসেন ঢাকায়। নটর ডেম কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক শেষে ভর্তি হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটারবিজ্ঞান বিভাগে।
    অনার্স-মাস্টার্স শেষে কিছুদিন কাজ করেন বাংলাদেশের সফটওয়্যার ইন্ডাস্ট্রিতে। এরপর শিক্ষকতা পেশায় যোগ দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যপ্রযুক্তি ইনস্টিটিউট, আইআইটিতে। কম্পিউটারবিজ্ঞানেই পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব ইলিনয় অ্যাট শিকাগো থেকে।
    পিএইচডির সুবাদে লেখকের কাজ করার সুযোগ হয় অ্যাক্সেনচিউর এবং মাইক্রোসফটের মতো কোম্পানিগুলোতে। মাইক্রোসফটের প্রধান শাখা রেডমন্ডে থেকেই সুযোগ হয়েছিল ‘মাইক্রোসফট অফিস’ কিংবা ‘উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম’-এর মতো বিশ্বখ্যাত সফটওয়্যারের ডেভলপমেন্ট প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করার।
    কম্পিউটার প্রকৌশলী স্ত্রী সুমাইয়া সায়েদ, দুই সন্তান বাবুই ও তরুকে নিয়ে বসবাস করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্যবাহী শহীদুল্লাহ হলের শিক্ষক কোয়ার্টারে।
    ই-মেইল : [email protected]
    ফেসবুক : www.facebook.com/mainul.raju

    ৳ 170৳ 200
  • ঝংকার মাহবুবের ছয়টি বই

    অর্ধদশক ধরে সিরিয়াসলি লেখালেখি করে নিজেকে অতুলনীয় করে তুলেছেন ঝংকার মাহবুব।
    লেখক বুদ্ধি করে বলেন, অতুলনীয়। যাতে অন্য কেউ তুলনা করতে না আসে। সেই একই সুরে ক্লোজআপ-মার্কা হাসি দিয়ে দাবি করেন, তিনি খেলাধুলার ফার্স্ট বয়। পরে এক সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি থেকে জানা যায়, কাজিনদের সাথে কুতকুত খেলায় উনি নিয়মিতই লাস্ট হতেন। তবে কাজিনদের মধ্যে উনি ছাড়া আর কোনো ছেলে না থাকায় টেকনিক্যালি তিনিই ফার্স্ট বয়।
    মাঝবেলায় এসে খেলাধুলার ফার্স্ট বয় হওয়ার প্যারা না থাকায় বুয়েটের IPE ডিপার্টমেন্টের ইতিহাসে প্রথম জিপিএ ৪.০০-এর মধ্যে ৪.০০ পান। বুয়েট থেকে পাস করার পর ৩ বছর স্টার্টআপ করে, নর্থ ড্যাকোটা স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে মাস্টার্সও করেন। বর্তমানে স্ত্রী কারিনা ইসলামের চাকরিকে অজুহাত হিসেবে কাজে লাগিয়ে টেক্সাসের ডালাস শহরে বসে শিকাগোর নিলসেন কোম্পানিতে রিমোটলি সিনিয়র ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে কামলা খাটেন।

    ৳ 1,405
  • পাইথন প্রোগ্রামিং 3.10

    জাকির হোসাইন গ্র্যাজুয়েশন সমাপ্ত করেছেন কম্পিউটার সায়েন্সের ওপর। বর্তমানে ফ্রিল্যান্স সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করছেন। পাইথন প্রোগ্রামিং ব্যবহার করে কাজ করেছেন মেশিন লার্নিং সম্পর্কিত কয়েকটি প্রজেক্টে।

    কাজের পাশাপাশি লেখালিখি ও ঘোরাঘুরি করতে পছন্দ করেন। প্রোগ্রামিংয়ের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তার লেখা পাওয়া যাবে তার নিজস্ব ব্লগ https://jakir.me-এ।

    পাইথন প্রোগ্রামিং 3.10 বইটি ছাড়াও আদর্শ থেকে লেখকের আরেকটি বই প্রকাশিত হয়েছে সি প্রোগ্রামিং নিয়ে।

    ৳ 289৳ 340
  • প্রোগ্রামিংয়ের চৌদ্দগোষ্ঠী

    প্রায় তিন দশক ধরে লেখালেখি করে যাচ্ছেন ঝংকার মাহবুব। যদিও তার লেখালেখির পুরোটাই গেছে পরীক্ষার খাতায়, পাস নম্বরের আশায়।
    তবে লেখালেখি করে আজ পর্যন্ত ফুটা পয়সা কামাই করতে না পারলেও ক্লাস সেভেনে থাকা অবস্থায় স্ট্যান্ডআপ কমেডি প্রতিযোগিতায় সেকেন্ড হওয়ার গৌরব অর্জন করেছিলেন। হাড্ডাহাডি সেই লড়াইয়ে প্রতিযোগী ছিল তিনজন। যাদের মধ্যে একজন ছিল অনুপস্থিত।
    এ ছাড়া নবম শ্রেণিতে পড়ার সময়, উচ্চতা কম হওয়ার সুবিধায়, ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণির বালকদের সাথে জুনিয়র ক্যাটাগরিতে মোরগ লড়াইয়ে নেমেছিলেন তিনি। সেই লড়াইয়ে বড় ক্লাসের ভাই হিসেবে দেখানো সম্মানকে পুঁজি করে, শেষ তিনজন পর্যন্ত পাশ কাটিয়ে টিকতে পেরেছিলেন। তারপর বাকি দুজন বড় ভাইয়ের সম্মানের মাথামুণ্ডু খেয়ে, ওনাকে কনুই দিয়ে গুঁতা মেরে মাটিতে ফেলে দেয়। তখন লুঙ্গির কাছা সামলিয়ে উঠে দাঁড়াতে না পারলেও ততক্ষণে মোরগ লড়াইয়ে তৃতীয় হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। আর পুরস্কার হিসেবে পেয়েছিলেন লাল রঙের সাবানের কেইস।
    বুয়েট থেকে পাস করে, নর্থ ডেকোটা স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে মাস্টার্স করে বর্তমানে আমেরিকার শিকাগো শহরে সিনিয়র ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে কর্মরত আছেন তিনি।
    www.fb.com/jhankarmahbub

    ৳ 305৳ 360
  • প্রোগ্রামিংয়ের বলদ টু বস

    ছোটবেলায় লেখালেখির বিস্ময়কর প্রতিভা দেখিয়ে সবাইকে মুগ্ধ করেছিলেন ঝংকার মাহবুব। যদিও লিখেছিলেন অ আ ক খ। আর মুগ্ধ হয়েছিলেন ওনার আব্বু-আম্মু। তারপরও চকলেট, আচার, আইসক্রিমের লোভে লেখা চালিয়ে যেতে থাকেন তিনি। কিছুদিন পর দাঁতে পোকা হওয়ায়, আচার-আইসক্রিমের সাপ্লাই কমে যাওয়ায় ওনার জ¦লন্ত প্রতিভাকে ঘুম পাড়িয়ে ফ্রিজে রেখে দিতে বাধ্য হন। মাঝের কয়েক বছর আপ্রাণ চেষ্টা করলেও ওনার উর্বর মস্তিষ্ক থেকে উল্লেখযোগ্য কিছুই পয়দা হয়নি। শেষমেশ টিকতে না পেরে, দেশের গরমকে দোষারোপ করে, চলে গেছেন শীতের কামড় খাওয়া দেশে। সেখানে ঘুঁটনি দিয়ে নাড়িয়ে ডালের মধ্যে আলোড়ন সৃষ্টি করায় নিজেকে আলোড়ন সৃষ্টিকারী লেখক হিসেবে আবিষ্কার করেন।
    অন্য কিছু হওয়ার সুযোগ ছিল না বলে বুয়েটের ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টে দ্বিতীয় হন। নর্থ ডেকোটা স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগে মাস্টার্স করে প্রোগ্রামিং জগতে আসেন। এখন বাড়িওয়ালার ভাড়ার টাকা পরিশোধ করার ঠেলায় শিকাগোর নিলসেন কোম্পানিতে সিনিয়র ওয়েব ডেভেলপার ও বসের ঝাড়ি খাওয়া প্রোগ্রামার হিসেবে কামলা খাটেন।
    www.fb.com/jhankarmahbubshow
    www.jhankarmahbub.com

    ৳ 225৳ 267
  • বাবুদের জন্য প্রোগ্রামিং

    প্রাপ্তী রহমানের জন্ম রাজশাহীতে। মা সাইদা খান এবং বাবা মো: আফজালুর রহমান সিদ্দিকী।
    তিনি বর্তমানে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সিএসই বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী।
    শিশুদের প্রোগ্রামিং নিয়ে তিনি কাজ করা শুরু করেন ২০১৯ সাল থেকে। তার উদ্যোগ “Ministry of Codes” শিশুদের বাংলা ভাষাতে প্রোগ্রামিং, রোবটিকস এবং STEM এডুকেশন শিখিয়ে থাকেন। প্রাপ্তী এবং তার টিম মিলে শিশুদের জন্য ডেভলপ করেছে বিশ্বের প্রথম বাংলা IDE “অনির্বাণ” এবং STEM রোবট “Kitty”।
    তার কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১৯ সালে পেয়েছে বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট, ২০২০ সালে পেয়েছে ন্যাশনাল আইসিটি পুরস্কার এবং ২০২১ সালে জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম থেকে গ্লোবাল শেপার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে।
    /prapty.moc
    /MinistryOfCodes

    ৳ 204৳ 240
  • সহজ ভাষায় অ্যালগরিদম

    এহ্‌সানুল ইসলাম’র জন্ম ও শৈশব ময়মনসিংহে।
    চট্টগ্রামে ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থাতেই প্রোগ্রামিংয়ের ভূত চেপে বসে লেখকের মাথায়। কলেজ-জীবন শেষে ফুল ফ্রি স্কলারশিপ পেয়ে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে চলে যান দেশের বাইরে।
    বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষ থেকেই নানাবিধ গবেষণামূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়েন তিনি। স্বপ্ন দেখেছিলেন যেন মায়ের ভাষা বাংলাতেও প্রোগ্রামিংকে সবার কাছে সহজ করে তুলে ধরতে পারেন। লেখালেখির সূত্রপাত ঘটে ঠিক তখনই। ব্লগিংয়ের পাশাপাশি প্রোগ্রামিং নিয়ে দুইটি ই-বুকও লিখে ফেলেন তিনি। সহজ ভাষায় অ্যালগরিদম বইটি লেখকের অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২২-এ প্রকাশিত প্রথম বই।
    আত্মতৃপ্তি এবং কাজের স্বার্থেই করেছেন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, প্রোডাক্ট ম্যানেজমেন্ট, সমসাময়িক কন্টেন্ট মেকিং থেকে শুরু করে মার্কেট এনালাইজিং এবং গ্রাফিক্স ডিজাইনিং-সহ নানাবিধ কাজ।

    ৳ 238৳ 280
  • সহজ ভাষায় পাইথন ৩

    মাকসুদুর রহমান মাটিন বাংলাদেশের মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলনের একজন উৎসাহীকর্মী, পরিচিত মুখ। আট বছর ধরে সাধ্য অনুযায়ী সেবা দিয়ে যাচ্ছেন দেশীয় ওপেন সোর্স কমিউনিটিকে।
    কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে যুক্ত ছিলেন বাংলাদেশ ওপেনসোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন) ও উবুন্টু বাংলাদেশের সঙ্গে। এক সময় অবদান রেখেছেন মজিলা ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন প্রজেক্টে। বর্তমানে লিনাক্স কার্নেল ভিত্তিকমুক্ত অপারেটিং সিস্টেম ‘উবুন্টু’ এবং পাইথন প্রোগ্রামিংকে আমাদের দেশের মানুষের কাছে জনপ্রিয় করে তোলার জন্য নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছেন।
    দিনের বেশিরভাগ সময় ব্যয় করেন ক্লাউড ইনফ্রাস্ট্রাকচার আর্কিটেকচার, অটোমেশন ও সিকিউরিটির পেছনে। অবদান রাখছেন বিভিন্ন জনপ্রিয় ওপেন সোর্সপ্রজেক্টে। পাশাপাশি চলছে অণুগল্প, কবিতা ও প্রযুক্তিবিষয়ক লেখালেখি। বর্তমানে টেলিনর হেলথ বাংলাদেশে ডেভঅপস ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত।
    অবসর সময়ে বইপড়া, রান্না করা এবং বিভিন্নস্তরের মানুষের জীবন-দর্শন গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করা তার শখ।

    ৳ 425৳ 500
  • সি প্রোগ্রামিং

    জাকির হোসাইনের জন্ম লক্ষীপুর জেলার রামগঞ্জে। কম্পিউটার সাইন্স এবং ইঞ্জিনিয়ারিং এর উপর পড়ালেখা করেছেন সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটিতে। বিভিন্ন পত্রিকায় এবং ব্লগে প্রোগ্রামিং নিয়ে লেখা লেখি শুরু করেছেন ২০১০ সাল থেকে। তার ব্লগ www.jakir.meতে প্রোগ্রামিং ও প্রযুক্তি নিয়ে লিখছেন নিয়মিত।

    ৳ 255৳ 300
  • হাতেকলমে পাইথন ডিপ লার্নিং

    স্কুলে থাকতেই রেডিও কমিউনিকেশন নিয়ে ভালোবাসায় পড়ে যান লেখক। ১৯৭০ সালে ঢাকায় জন্ম নেওয়া লেখকের ছোটবেলার ঢাকার স্কাইলাইন ফাঁকা ছিল অনেকটাই। ফলে বাসার ছাদই পাল্টে গিয়েছিল ‘রেডিও অ্যানটেনা’ হিসেবে। দূরের দুর্বল সিগন্যালকে ‘অ্যাম্পলিফাই’ করার ধারণা নিতে নিতেই চলে যেতে হয় ক্যাডেট কলেজে। ছুটিতে বাসায় এলে চাকরিজীবী মা-বাবার দিনের অনুপস্থিতিতে পুরো বাসা ‘আরঅ্যান্ডডি’ ল্যাব বানাতে গিয়ে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিটে ফিউজ ওড়ানো ছিল নিয়মিত ঘটনা। বাসায় আগুন ধরানোর জন্য কম মার খেতে হয়নি তাকে।
    ইলেকট্রনিক কমিউনিকেশনের প্রতি ‘অসম্ভব’ দুর্বলতা তাকে নিয়ে আসে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিগন্যাল কোরে। মার্কিন সেনাবাহিনীর সিগন্যাল স্কুল থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত সরকারি ও ব্যক্তিগত উদ্যোগে সত্তরের বেশি ট্রেনিং জুটেছে তার অভিজ্ঞতার ঝুলিতে। পাশাপাশি ম্যাকমাস্টার ইউনিভার্সিটির কোর্সেরার একটি কোর্স ‘লার্নিং হাউ টু লার্ন’ পাল্টে দেয় ওনার দৃষ্টিভঙ্গি, নতুন জিনিস শেখার ব্যাপারে। বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনে প্রায় সাত বছরের অভিজ্ঞতা দিয়েছে অন্যভাবে চিন্তা করতে। সরাসরি কাজ করেছেন কোটি কোটি ডেটা রেকর্ডকে সরকারি প্রজ্ঞায় যুক্ত করতে।
    ২০০৯ সালে জাতীয় স্কেলে প্রতিটি টেলিকম অপারেটরের কোটি কোটি মিনিটের ‘ইন্টারকানেকশন ভয়েস কল কস্ট মডেলিং’ তৈরিতে সহযোগিতা করতে গিয়ে তার ধারণা পাল্টায় ডেটার ব্যাপারে। সরকারি

    ৳ 595৳ 700
  • হাবলুদের জন্য প্রোগ্রামিং

    খুব অল্প বয়সেই লেখালেখি শুরু করেন ঝংকার মাহবুব। শুরুটা ছিল বাসার দেয়ালে, বোনদের বইয়ের পাতাতে কিংবা ঘুমন্ত অবস্থায় বাবার শরীরে, আঁকাআঁকি করে। তবে লেখকের অসীম প্রতিভা জোর করে প্রস্ফুটিত করার চেষ্টা পদে পদে বাধাগ্রস্ত হয়েছিল। এসব বাধার মধ্যে অন্যতম ছিল আম্মুর কাছে বোনদের নালিশ, শক্ত ঘুমের বালিশ, গৃহশিক্ষকের বকা, বার্ষিক পরীক্ষায় প্রশ্নের ধোঁকা। তারপরও এসব বাধাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে সংস্কৃতির প্রায় সব শাখাতেই লেখকের অবাধ সুষ্ঠু বিচরণ ছিল। লেখক বুদ্ধি করে বলেন, বিচরণ ছিল। কারণ এখন আর বিচরণ নেই। তাছাড়া কবিতা, উপন্যাস, গল্প বা প্রবন্ধ লিখে সুবিধা করে উঠতে পারেননি বলে, শেষ ভরসা হিসেবে প্রোগ্রামিং নিয়ে লেখালেখি শুরু করেন।
    সংস্কৃতি অঙ্গনে সঁপে দেওয়া লেখকের জীবন থেকে অনেকটা সময় চুরি করে নিয়েছে বুয়েটের ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট। বাকি অংশ কেড়ে নিয়েছে নর্থ ডেকোটা স্টেট ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্সের মাস্টার্স ডিগ্রি। আর এখন বিদেশ থেকে দেশে ফোন করার টাকা জোগাড় করতে হিমশিম খান বলে, আমেরিকার শিকাগো শহরে নিলসেন কোম্পানিতে সিনিয়র ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে কামলা খাটেন।
    ঝংকার মাহবুব, হাবলু দ্য গ্রেট
    www.fb.com/JhankarMahbub
    www.jhankarmahbub.com

    ৳ 226৳ 267