• নিউট্রিশন প্রোগ্রামিং: স্বাস্থ্য, পুষ্টি, ডায়েট

    সাজেদুর রহমান। জন্ম ৬ জানুয়ারি ১৯৯৫, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার রহনপুর গ্রামে। বাবা আব্দুস সামাদ বিশ্বাস, মা আঞ্জুমানয়ারা বেগম। বর্তমানে রাজশাহীর বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার সায়েন্সে পড়াশোনা করছেন। ছোটবেলা থেকে মোটাসোটা গড়নের ছিলেন। নিজেকে ফিট করতে গিয়ে নিউট্রিশনের প্রেমে পড়ে যান। যুক্তরাষ্ট্রের ইন্টারন্যাশনাল স্পোর্টস সায়েন্স অ্যাসোসিয়েশন (ISSA) থেকে ফিটনেস নিউট্রিশনের ওপর কোর্স করেছেন। পড়াশোনার পাশাপাশি বর্তমানে অনলাইন নিউট্রিশন কোচ হিসেবে কাজ করছেন। নিজের মধ্যেই জ্ঞান সীমাবদ্ধ না রেখে সবাইকে ব্লগ আর ভিডিও তৈরি করে জানানো শুরু করেন। ২০১৬ সালের ডিসেম্বর থেকে ইউটিউবে নিউট্রিশন নিয়ে বাংলায় সহজবোধ্য করে বিভিন্ন ভিডিও আপলোড করা শুরু করেন। বর্তমানে ৪০-এর অধিক ভিডিও রয়েছে চ্যানেলটিতে।
    স্বাস্থ্যসচেতনতাকে সাধারণ মানুষকে আরো স্বাস্থ্যসচেতন করতে তিনি ‘লুজ টু গেইন’ নামে একটি অনলাইন প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছেন। প্রতিষ্ঠানটি তার গ্রাহককে www.loosetogainbd.com ওয়েবসাইটের মাধ্যমে স্বাস্থ্য পরামর্শ দিয়ে আসছে। আর ‘লুজ টু গেইন’ নামক ফেসবুক গ্রুপে রয়েছে উন্মুক্ত আলোচনা।
    লেখক গান শুনতে, গাইতে, গিটার বাজাতে, ছবি তুলতে, নতুন কিছু শিখতে এবং শেখাতে ভালোবাসেন।

    যোগাযোগ
    ই-মেইল : [email protected]
    ফেসবুক : fb.com/sajedur007
    ইউটিউব : youtube.com/c/SajedurRahman
    ওয়েবসাইট : www.sajed.me

     

    ৳ 210৳ 300
  • কথায় কথায় english

    রোকসানা আক্তার রুপী একজন স্বনামধন্য করপোরেট ট্রেইনার। বহুমুখী অভিজ্ঞতায় ঋদ্ধ রুপী একজন স্বীকৃত টোস্টমাস্টার, একজন অসাধারণ মেন্টর ও কোচ। কমিউনিকেশনে তার দক্ষতা প্রশ্নাতীত, নেতৃত্বগুণ পরীক্ষিত। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি (বাংলাদেশ), বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসসহ বিভিন্ন পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেছেন।
    ট্রেইনার হিসেবে দীর্ঘ ১৬ বছরের অভিজ্ঞতায় ৫ হাজারের বেশি সেশন পরিচালনা করেছেন। বয়স-জাতি-ধর্ম-বর্ণ-পেশানির্বিশেষে প্রায় ৪০ হাজার অংশগ্রহণকারীকে দিকনির্দেশনা দিয়েছেন।
    জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ থেকে ইংরেজিতে বিএ (অনার্স) করার পর ইংরেজি সাহিত্যে মাস্টার্স করেছেন। এছাড়া TESOL-এ নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটি থেকে মাস্টার্স করার পাশাপাশি TESOL-এ বিশেষায়ন করেছেন অ্যারিজোনা স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে।
    দিনশেষে রোকসানা আমাদেরই একজন। জীবন ও সব জীবিত সত্তার প্রতি প্রবল উৎসাহী রোকসানা ব্যক্তিজীবনে সততা ও একাগ্রতাকেই সর্বোচ্চ আসনে স্থান দিয়েছেন।
    www.trainingwithrokhsana.com

    ৳ 322৳ 460
  • ক পদার্থবিজ্ঞান

    তাকে যদি বলা হয় একদল উৎসুক মানুষের সামনে দাঁড়িয়ে বিজ্ঞানের কোনো একটা জটিল বিষয় বোঝাতে, সেটা অনেকটা মাছকে পানিতে সাঁতার কাটতে বলার মতো হয়ে যায়। এমন অনায়াসে তিনি কাজটি করতে পারেন, ভালোবাসেন বলেই। পেশায় প্রকৌশলী, কিন্তু মনে-প্রাণে তিনি একজন শিক্ষক। জনপ্রিয় অনলাইন প্ল্যাটফর্ম অন্যরকম পাঠশালা এবং টেন মিনিট স্কুলের জন্যে তিনি শতাধিক লেকচার দিয়েছেন বিজ্ঞানের নানা বিষয়ে। এনটিভির পর্দায় প্রচারিত তার বিজ্ঞান বিষয়ক অনুষ্ঠান ‘বিজ্ঞানে আনন্দ’ শিশু-কিশোরদের বিজ্ঞানে আগ্রহী করে তুলছে। আর যারা সরাসরি তার ক্লাস করেছে, তারা তো ভালোভাবেই জানে তার রকম-সকম! বলার মতো লেখাতেও তিনি সমান স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। ছোটদের প্রিয় অন্যরকম বিজ্ঞানবাক্সের ম্যানুয়াল বই, গল্পের সুন্দর লেখাগুলোর বেশ কিছু রাতুল খানেরই করা! আইডিয়াল স্কুল, নটরডেম কলেজ এবং বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) কাটে তার শিক্ষাজীবন। যেখানেই গেছেন, সেখানেই শেখা এবং শেখানোর জন্যে কাজ করেছেন। ভবিষ্যতেও তাই করতে চান। রাতুল খান বর্তমানে কর্মরত আছেন অন্যরকম বিজ্ঞানবাক্সের রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট বিভাগে।

    ৳ 224৳ 320
  • আমারে দেব না ভুলিতে

    আশীফ এন্তাজ রবি

    আমার জীবনের লক্ষ্য বারবার বদলে গেছে।
    ছোটবেলায় আমি আইসক্রিমওয়ালা হতে চেয়েছিলাম। স্কুলে পড়ার সময় হতে চেয়েছিলাম ডাক্তার। যৌবনে আমার জীবনের লক্ষ্য আমূল বদলে যায়। তখন আমি লেডিস হোস্টেলের দারোয়ান হওয়ার বাসনা পোষণ করতাম।
    আমি শেষমেশ কিছুই হতে পারিনি। যেটা হয়েছি, তার নাম ফেরিওয়ালা, আমি গল্প ফেরি করে বেড়াই।
    আড্ডায় আমি ঘণ্টার পর ঘণ্টা গল্প বলে যাই। সেই গল্প শোনার জন্য অনেকেই আড্ডায় আসেন। একসময় আড্ডার পরিসর বেড়ে যায়। আমি রেডিওতে রাত জেগে গল্প বলা শুরু করি। কয়েক বছর ধরে গল্পগুলো লিখে ফেলার চেষ্টা করছি। আমার মতো অলস মানুষের জন্য এটি অনেক কঠিন কাজ।
    আমার জন্ম ঢাকায়, ১৯৭৭ সালে। আমার জন্ম নিয়েও তিনটি গল্প আছে। যে ডাক্তারের হাতে আমি জন্মেছিলাম, ওই ডাক্তারনি ছিলেন দেশের শ্রেষ্ঠ চিকিৎসক। পরবর্তী সময়ে অন্য কারণে তিনি বিখ্যাত হন। পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে তার ছেলে একটি খুন করেছিল। নব্বইয়ের দশকে সেই ছেলেটির ফাঁসি হয়। সে সময় এ ঘটনাটি বেশ সাড়া ফেলেছিল।
    জন্ম নিয়ে দ্বিতীয় গল্পটি হলো, আমি জন্মেছিলাম রবিবারে। কাজেই আমার বাবা আমার নাম রাখেন রবি। যদিও এ নামটি নিয়ে সেই সময়ে ব্যাপক বিতর্ক হয়। মুসলমান ছেলের নাম কেন রবি হবে, এ নিয়ে আমার আত্মীয়রা আপত্তি তোলেন। আমার পিতা দ্বিধায় পড়ে যান।
    আমার জন্মসংক্রান্ত তৃতীয় গল্পটি বলতে ইচ্ছে করছে, কিন্তু ফ্ল্যাপে জায়গা কম থাকার কারণে সেই গল্পটি আপাতত মুলতবি থাকুক।
    লেখক পরিচিতিতে শুধু এ বাক্যটিই থাকুক, আমি আশীফ এন্তাজ রবি, গল্পের ফেরিওয়ালা।
    প্রকাশিত গ্রন্থ
    পূর্বপূরুষ
    চন্দ্রমুখী
    কাগজের নৌকা
    পালিয়ে যাবার পরে
    আমার আছে ফেসবুক
    গল্পতুচ্ছ

    ৳ 420৳ 600
  • গল্পে-জল্পে জেনেটিক্স ২য় খণ্ড

    চমক হাসানের জন্ম ২৮ জুলাই, ১৯৮৬, কুষ্টিয়ায়। বাবা আহসানুল হক, মা নওরাজিস আরা জাহান। এইচএসসি পর্যন্ত লেখাপড়া কুষ্টিয়াতেই। বুয়েট থেকে তড়িৎকৌশলে স্নাতক এবং যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব সাউথ ক্যারোলাইনা থেকে পিএইচডি সম্পন্ন করেন। বর্তমানে গবেষণা ও উন্নয়ন প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত আছেন ‘বোস্টন সায়েন্টিফিক করপোরেশন’-এ। স্ত্রী ফিরোজা বহ্নি এবং কন্যা বিনীতা বর্ণমালার সঙ্গে থাকেন ক্যালিফোর্নিয়ার সান্টা ক্লারিটা শহরে।
    তার ভালো লাগে গাইতে, পড়তে, শিখতে, শেখাতে। চমক হাসান আশাবাদী মানুষ, স্বপ্ন দেখেন আলোকিত ভবিষ্যতের, যখন এ দেশের ছেলেমেয়েরা আনন্দ নিয়ে লেখাপড়া করবে, প্রশ্ন করতে ভয় পাবে না, মুখস্থ করে পাস করবে না। ওরা অনুভব করবে কেন, কীভাবে, কী হচ্ছে! গণিত অলিম্পিয়াড শুরুর সাথে সাথে এই আন্দোলনটাও শুরু হয়ে গেছে। তিনি সেই আন্দোলনের একজন কর্মী। গণিত অলিম্পিয়াডের একাডেমিক দলে প্রশিক্ষক, প্রশ্নপ্রণেতা ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক হিসেবে কাজ করেছেন বেশ কিছুদিন। পাঠকের যেকোনো মন্তব্য তার কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। মন্তব্য জানাতে পারেন ই-মেইলে কিংবা ফেসবুকে তার অফিশিয়াল পেজে।

    ৳ 280৳ 400
  • বিটকয়েন

    মোস্তফা তানিম তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক একটি মার্কিন কোম্পানিতে ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে কর্মরত।
    বুয়েট থেকে লেখাপড়ার পাট চুকিয়ে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান। টেক্সাস এ অ্যান্ড এম ইউনিভার্সিটি থেকে তিনি উচ্চতর ডিগ্রি নেন এবং কর্মজীবনে প্রবেশ করেন। এই করতে গিয়ে তিনি আমেরিকায় থিতু হয়েছেন।
    অথচ এমনটা হবার কথা ছিল না। শখের বশে অনেকে লেখক হন— মোস্তফা তানিমের জন্য বিষয়টা ছিল অন্যরকম। কৈশোর থেকেই তিনি সিরিয়াসলি লেখালেখি শুরু করেছিলেন।
    লেখালেখিটা তার দ্বিতীয় পেশা। ইদানিং তিনি আবার জোরেশোরে লিখা শুরু করেছেন। এই মেলাতেই তার দুটি বই প্রকাশিত হয়। উত্তর আমেরিকার প্রথম আলোতেও নিয়মিত লিখছেন।
    বিজ্ঞান তার একটা প্রিয় বিষয়, তার লেখায় সেটার স্পষ্ট ছাপ পড়েছে। বিজ্ঞানের সাথে কলার বিরোধ— মোস্তফা তানিম অসামান্য দক্ষতায় সেই বিরোধ সামলান তো বটেই, মাঝে মাঝে দুটোকে বেশ দারুণভাবে সমন্বয় করেন। ফলে তিনি এ পর্যন্ত দারুণ চারটি সায়েন্স ফিকশান সহ নটি গ্রন্থ লিখে ফেলেছেন, যা পাঠক সমাদৃত।
    https://www.facebook.com/mostafa.tanim

    ৳ 187৳ 267
  • নন-মার্কেটারদের জন্য মার্কেটিং

    জন্ম ও বেড়ে ওঠা, স্থায়ী বসবাস ঢাকায়। ধানমন্ডি গভ. বয়েজ থেকে মাধ্যমিক ও ঢাকা সিটি কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিকের পাঠ চুকিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় পাড়ি জমান উচ্চতর শিক্ষালাভের উদ্দেশ্যে। সেখান থেকে পড়াশোনা শেষ করে দেশের মাটিতে ফিরে এসে মার্কেটিংয়ে এমবিএ করেছেন। ভোক্তা সন্তুষ্টির ওপর তার একটি একাডেমিক গবেষণাপত্র রয়েছে। মার্কেটিং কর্মকর্তা ছিলেন দেশীয় টেকনোলজি স্টার্টআপ, ই-কমার্স, মার্কেটিং এজেন্সি এবং দেশি-বিদেশি কয়েকটি সফটওয়্যার কোম্পানিতে। বর্তমানে ডিজিটাল মার্কেটিং পেশায় রয়েছেন। নিজস্ব ডিজিটাল মার্কেটিং কনসালট্যান্সি ফার্মও রয়েছে।
    প্রাইমারিতে পড়াকালীন প্রলয় হাসানের লেখালেখিতে হাতেখড়ি। ২০০৭ সাল থেকে অনলাইনে লেখালেখি করছেন।
    ‘নন-মার্কেটারদের জন্য মার্কেটিং’ ছাড়াও ব্র্যান্ডিংয়ের ওপর এ বছরই তার আরেকটি গ্রন্থ প্রকাশিতব্য। মার্কেটিং-ব্র্যান্ডিং নিয়ে পড়াশোনা ও লেখালেখি ভীষণ উপভোগ করেন। ব্যক্তিজীবনে বইপোকা ও নিভৃতচারী মানুষ। অবসরে কবিতা ও বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনিতে বুঁদ হয়ে থাকতে পছন্দ করেন। প্রযুক্তিপণ্য ও সমুদ্র ভালোবাসেন।

    ৳ 252৳ 360
  • টুটুম জানতে চায় মেঘের কথা

    ফিরোজা বহ্নির জন্ম ১৯৮৭ সালের ৫ জুন, ঢাকায়। বাবা ওমর ফারুক শাহজাহান, মা শেলিনা আর্জুমান্দ বানু। বর্তমানে সহমানুষ চমক হাসান ও কন্যা বিনীতা বর্ণমালার সঙ্গে থাকেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার সান্টা ক্লারিটা শহরে। বহ্নি ভিকারুন্নিসা নূন স্কুল ও কলেজ থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক সম্পন্ন করার পর বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে স্থাপত্যে স্নাতক অর্জন করেন। পরে যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব সাউথ ক্যারোলাইনা থেকে সিভিল অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি বাংলাদেশে মৃন্ময় আর্কিটেকচারাল ফার্মে জুনিয়র আর্কিটেক্ট এবং স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে স্থাপত্য অনুষদের প্রভাষক হিসেবে কাজ করেছেন। এ ছাড়া গবেষণা সহকারী হিসেবে কাজ করেছেন ইউনিভার্সিটি অব সাউথ ক্যারোলাইনাতে। অবসরে বহ্নির ভালো লাগে গাইতে, পড়তে, জলরঙে ছবি আঁকতে, কাগজ দিয়ে কুইলিং করতে আর উল দিয়ে পশমি টুপি বুনে মানুষকে উপহার দিতে। প্রিয়জনকে চিঠি লেখাও তাঁর খুব প্রিয় কাজ। বহ্নি গল্প করতে প্রচণ্ড ভালোবাসেন, গল্পের রঙে-রসে শ্রোতাদের বহুক্ষণ মজিয়ে রাখার প্রতিভা তাঁর সহজাত। জীবনের পথ পরিক্রমায় কল্পনা আর বাস্তবতার দুই জগতেই অনেক অনেক গল্প জমা হয়েছে তাঁর। সাবলীল লেখনীতে সেই গল্পগুলো পৌঁছে দিতে চান পাঠকের কাছে। লেখালিখির শুরু সেই ভাবনা থেকেই। ‘হাঁটি হাঁটি পা পা’ তাঁর প্রথম একক গ্রন্থ। এর আগে ২০১২ সালে চতুর্মাত্রিক ব্লগ সংকলনে তাঁর লেখা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়। বই নিয়ে যেকোনো পরামর্শ বা মতামত জানাতে পারেন এই ই-মেইল ঠিকানায়: [email protected]

    চমক হাসান

    বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের যে ক’জন তরুণ লেখক পাঠকদের মাঝে বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন, চমক হাসান তাদের মাঝে অন্যতম। তিনি শুধু লেখক হিসেবেই নয়, একজন সফল ইউটিউবার এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যক্তিত্ব হিসেবেও ব্যাপকভাবে সমাদৃত। ১৯৮৬ সালের ২৮ জুলাই কুষ্টিয়া জেলায় জন্মগ্রহণ করেন চমক হাসান। সেখানেই অতিবাহিত করেন শৈশব ও কৈশোর। উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত কুষ্টিয়ায় পড়াশোনার পর তিনি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল বিভাগে ভর্তি হন এবং সেখান থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেন। বর্তমানে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অফ সাউথ ক্যারোলাইনা-তে পিএইচডি সম্পন্ন করছেন। চমক হাসান একজন স্বপ্নদ্রষ্টা, যাঁর আশা হলো- এদেশের ছাত্র-ছাত্রীরা গণ্ডীবদ্ধ শিক্ষাব্যবস্থা থেকে বের হয়ে সহজ ভাষায় লেখা পাঠ্যবই পড়বে এবং বড় হবে বিজ্ঞানকে ভালোবেসে, যার ফলে এ বিষয়ে তিনি লেখালেখি শুরু করেন। গণিত ও বিজ্ঞানকে ভালোবেসে রচিত চমক হাসান এর বই ১৪টি। চমক হাসান এর বই সমূহ এর মাঝে উল্লেখযোগ্য হলো ‘অঙ্ক ভাইয়া’, ‘অসাম স্টুডেন্টদের অসাম বিজ্ঞান প্যাকেজ’, ‘গণিতের রঙ্গে হাসিখুশি গণিত’, ‘গল্পে গল্পে জেনেটিক্স’ ইত্যাদি। চমক হাসান এর বই সমগ্র ছাত্র-ছাত্রীদের সহজে গণিত ও বিজ্ঞান বুঝতে নানাভাবে সাহায্য করে। গাইতে-পড়তে-শিখতে- জ্ঞান সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে পছন্দ করা এই মানুষটি নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন পড়াশোনাকে যথাসম্ভব আনন্দময় করে তুলতে। এদেশের শিক্ষার্থীরা সবচেয়ে সহজ ভাষায় সবচেয়ে আনন্দময় উপায়ে পাঠ্যবই পড়বে, এবং সেই সাথে তারা সত্যিকার অর্থেই বিজ্ঞানকে ভালোবেসে সবকিছু বুঝে বুঝে শিখব, মুখস্ত করে নয়- এই স্বপ্ন নিয়েই লেখালেখি চালিয়ে যাবার শপথ নিয়েছেন জনপ্রিয় এই তরুণ লেখক।

    ৳ 140৳ 200
  • হালাল মার্কেটিং

    প্রলয় হাসানের জন্ম, বেড়ে ওঠা এবং স্থায়ী বসবাস ঢাকায়। ধানমন্ডি গভ. বয়েজ থেকে মাধ্যমিক ও ঢাকা সিটি কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিকের পাঠ চুকিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় পাড়ি জমান উচ্চতর শিক্ষালাভের উদ্দেশ্যে। সেখান থেকে পড়াশোনা শেষ করে দেশের মাটিতে ফিরে এসে মার্কেটিংয়ে এমবিএ করেছেন। ভোক্তা সন্তুষ্টির ওপর তার একটি একাডেমিক গবেষণাপত্র রয়েছে। মার্কেটিং কর্মকর্তা ও কনসালটেন্ট ছিলেন একাধিক দেশীয় টেকনোলজি স্টার্টআপ, ই-কমার্স, মার্কেটিং এজেন্সি, এবং দেশি-বিদেশি কয়েকটি সফটওয়্যার কোম্পানিতে। বর্তমানে ডিজিটাল মার্কেটিং পেশায় রয়েছেন। নিজস্ব একটি ডিজিটাল মার্কেটিং কনসালট্যান্সি ফার্ম রয়েছে। এছাড়াও তিনি একজন সফল কোর্স ইন্সট্রাকটর।
    প্রাইমারিতে পড়াকালীন লেখালেখিতে হাতেখড়ি। ২০০৭ সাল থেকে অনলাইনে প্রায় নিয়মিত লেখালেখি করছেন। তার লিখিত বিজনেস কেসস্টাডি ছাপানো হয়েছে একাধিক দৈনিক পত্রিকায়, বানানো হয়েছে ডকুমেন্টারিও। ২০২১ -এর বইমেলায় তার নন-মার্কেটারদের জন্য মার্কেটিং বইটি বিভিন্ন মহলে তুমুল পাঠকপ্রিয়তা পেয়েছিলো। মার্কেটিং ও বিজনেস ক্যাটাগরির লেখকদের ভেতর ‘প্রলয় হাসান’ বর্তমানে একটি সুপরিচিত নাম।
    মার্কেটিং-ব্র্যান্ডিং-MarTech নিয়ে পড়াশোনা ও লেখালেখি ভীষণ উপভোগ করেন। ভবিষ্যতে এ বিষয়ে আরো কিছু বই লেখার পরিকল্পনা রয়েছে, যা নিয়ে এ দেশে এর আগে কখনো লেখা হয়নি। ব্যক্তিজীবনে বইপোকা ও নিভৃতচারী মানুষ। স্ত্রী ও পোষা মেনি বিড়ালকে নিয়ে ছোট্ট সংসার। অবসরে বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনিতে বুঁদ হয়ে থাকতে পছন্দ করেন। প্রযুক্তিপণ্য ও সমুদ্র ভালোবাসেন।

    ৳ 336৳ 480
  • কনফিউজিং ইংলিশ

    তিনি ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্যে অনার্স এবং ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ টিচিং (ELT)-এ মাস্টার্স সম্পন্ন করেছেন। শিক্ষকতা পেশায় নিজেকে দক্ষ করতে তিনি ব্যাচেলর অফ এডুকেশন (B.Ed) সম্পন্ন করেন এবং ব্রিটিশ কাউন্সিল থেকে TKT কোর্স করেন।

    তিনি দীর্ঘ ১৫ বছর যাবৎ শিক্ষকতার সাথে জড়িত। বর্তমানে ঢাকার একটি স্বনামধন্য ইংলিশ ভার্শন স্কুলে শিক্ষিকা হিসেবে কর্মরত আছেন। এছাড়াও তিনি বাংলাদেশের একটি অনলাইন শিক্ষামূলক প্লাটফর্ম School of English by Musfeka-এর প্রতিষ্ঠাতা। একইসঙ্গে তিনি বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে টিচার ট্রেইনার হিসেবে কাজ করছেন।

    ইংরেজি শেখা নিয়ে তার প্রথম বই ‘সহজ করে ইংরেজি শেখা’ ২০২২ সালে প্রকাশিত হয়।

    ৳ 350৳ 500
  • বেসিক টু অ্যাডভান্সড নেটওয়ার্কিং

    তিতাস সরকার জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইনফরমেশন টেকনোলজিতে মাস্টার্স করেছেন এবং সিসিএনএ পরীক্ষা দিয়ে সিসকো সার্টিফাইড হয়েছেন । এছাড়াও তিনি রেডহ্যাট পরীক্ষা দিয়ে লিনাক্স সার্টিফাইড এবং উইন্ডোজ সার্ভারের পরীক্ষা দিয়ে মাইক্রোসফটের সার্টিফিকেট অর্জন করেন। এছাড়াও আরও অনেকগুলো অনলাইন সার্টিফিকেট অর্জন করেছেন । বর্তমানে তিনি ইনোসিস সলিউশনস নামে একটি কম্পানিতে সিস্টেম এডমিনিস্ট্রেটর হিসেবে কর্মরত আছেন । পাশাপাশি টিসফট আইটিতে শিক্ষকতা করছেন । ছোট বেলা থেকেই ইনফরমেশন টেকনোলজি সম্পর্কে জানতে এবং জানাতে আগ্রহী । তিনি শুরুটা করেছিলেন বিভিন্ন অনলাইন টেকনোলজি সাইটে (যেমন- শিক্ষক.কম, টেকটিউনস.কম) লেখালেখি দিয়ে । বতমার্নে তিনি ইউটিউবে বিভিন্ন আইটি কোর্সের ভিডিও টিউটোরিয়াল তৈরি করে পাবলিশ করেন । ইউটিউবে তিনি প্রত্যেকটি কোর্সের ভিডিও তৈরি করে প্লে-লিষ্ঠ তৈরি করে রেখেছেন । ফলে তিতাস সরকার এর চ্যানেলে প্রত্যেকটি কোর্সের ভিডিও টিউটোরিয়াল একসাথে পাওয়া যাচ্ছে । ভবিষ্যতে মাতৃভাষায় আরও টেকনোলজি বিষয়ে বই তৈরি করার ইচ্ছা রয়েছে ।

    ৳ 308৳ 440
  • সৃষ্টির উল্লাসে রোবটিকস ১

    মিশাল ইসলাম রোবটিক্স ও আইওটি নিয়ে কাজ করতে ভালোবাসেন। তিনি আহসানুল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কম্পিউটার সাইন্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে বিএসসি শ্রেণিতে এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে মাস্টার্স শ্রেণিতে অধ্যায়ন করেন। কর্মজীবনে তিনি কম্পিউটার সার্ভিসেস লিমিটেডে আইওটি ইঞ্জিনিয়ার হিসাবে যুক্ত ছিলেন। এরপর বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কে প্রোগ্রাম কোঅরডিনেটর হিসাবে যুক্ত হন। পরবর্তীতে তিনি ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশে আইসিটি কোঅরডিনেটর হিসাবে যুক্ত হন এবং বর্তমানে সেখানেই কর্মরত আছেন। এর পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াডের কোঅরডিনেটর হিসাবে কাজ করছেন ও ইন্টারনেট অব থিংস কাউন্সিলের কাউন্সিল মেম্বার হিসাবে যুক্ত আছেন। মিশাল বই পড়তে ও ঘুরাঘুরি করতে পছন্দ করেন। পাশাপাশি শিশু-কিশোরদের রোবটিক্সে আরও আগ্রহী করতে প্রশিক্ষক হিসাবে কাজ করেন মাকসুদুল আলম বিজ্ঞানাগারে।

    ৳ 336৳ 480
  • বাংলাদেশে সন্ত্রাসবাদ

    সাইমুম পারভেজ ব্রাসেলসের ফ্রাই ইউনিভার্সিটির রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের মেরি কুরি পোস্ট-ডক্টরাল ফেলো। তিনি কমনওয়েলথ বৃত্তি নিয়ে পিএইচডি করেছেন অস্ট্রেলিয়ার সিডনি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। এর আগে ফুলব্রাইট বৃত্তি পেয়ে যুক্তরাষ্ট্রের জর্জ ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দ্বিতীয় মাস্টার্স ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে প্রথম মাস্টার্স ও ব্যাচেলর সম্পন্ন করেন। শিক্ষকতা করেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ও নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে। ড. পারভেজের বাংলাদেশের রাজনীতি, মিডিয়া ও সন্ত্রাসবাদ নিয়ে গবেষণাপত্র আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত নানা জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

    ৳ 462৳ 660
  • মারণ-রাজনীতি

    সারোয়ার তুষার একজন লেখক, অনুবাদক ও সংগঠক। জন্ম ও বেড়ে ওঠা ঢাকায়। বুদ্ধিবৃত্তিক নানা তৎপরতার সাথে যুক্ত। আগ্রহের এলাকা রাষ্ট্র, ক্ষমতা, সংবিধান, সহিংসতা, ইতিহাস, দর্শন, ধর্ম, ধর্মতত্ত্ব, সেক্যুলারিজম, বিউপনিবেশায়ন, প্ল্যানেটারি সায়েন্স, তত্ত্ব, চিন্তাপদ্ধতির ইতিহাস এবং সমাজ-সম্পর্ক। প্রকাশিত বই: ‘চিন্তার অর্কেস্ট্রা: পাঁচ বিশিষ্ট চিন্তকের সাথে আলাপচারিতা’ (২০২৩); ‘সাম্প্রদায়িকতা: ক্ষমতা ও রাজনৈতিকতা’ (সহ-লেখক: সহুল আহমদ, ২০২৩); ‘সময়ের ব্যবচ্ছেদ’ (সহ-লেখক: সহুল আহমদ, ২০১৯)। প্রকাশিতব্য বই: ‘ফিলিস্তিন: একুশ শতকের উপনিবেশ’; ‘চিন্তার তর্জমা’; ‘বুদ্ধিবৃত্তির বর্তমান বিন্যাস’।

    সহুল আহমদ একজন লেখক, অনুবাদক ও অ্যাক্টিভিস্ট। পড়াশোনা শাবিপ্রবিতে। বর্তমানে একটি গবেষণা প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। ‘রাষ্ট্রচিন্তা’ জার্নাল এবং ‘অরাজ’ ওয়েবসাইটের সম্পাদনার সাথে যুক্ত। আগ্রহের বিষয় ইতিহাস, মুক্তিযুদ্ধ, জেনোসাইড, সহিংসতা, রাজনীতি, বিউপনিবেশায়ন ও ধর্ম।

    প্রকাশিত বই: ‘শ্বাস নেওয়ার লড়াই’; ‘মুক্তিযুদ্ধে ধর্মের অপব্যবহার’; ‘জহির রায়হান: মুক্তিযুদ্ধ ও রাজনৈতিক ভাবনা’; ‘সময়ের ব্যবচ্ছেদ’ (সহ-লেখক: সারোয়ার তুষার)।

    ৳ 315৳ 450
  • সহজ ভাষায় জলবায়ু পরিবর্তন

    আহমাদ মুদ্দাসসের

    ‘কিশোর আলোর’ সহসম্পাদক। কাজ করেছেন বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের ‘স্কুলের মেয়েদের জন্য প্রোগ্রামিং’ ও ‘নারী উদ্যোক্তাদের উন্নয়ন’ প্রকল্পে। স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে আছেন বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতির ‘শিশু-কিশোর বিজ্ঞান কংগ্রেস’ ও ‘বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড’-এ। নিয়মিত লিখছেন ‘কিশোর আলো’ ও ‘বিজ্ঞানচিন্তা’ পত্রিকায়। আগ্রহ জলবায়ু, স্কুলশিক্ষা আর বিজ্ঞানে। ‘ক্ষুদে বিজ্ঞানীর ল্যাবরেটর’ বইয়ের সহলেখক। জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের সমস্যা ও সমাধান সংকেতের দুইটি বই সংকলন ও সমন্বয় করেছেন।

    ৳ 238৳ 340
  • অদ্বিতীয়া

    প্লাবন রায়ের জন্ম ১৯৯৯ সালের ২২ সেপ্টেম্বর এক শুক্লপক্ষে। বেড়ে ওঠা জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ীতে। শিক্ষাজীবনে তিনি আনন্দ মোহন কলেজ থেকে প্রাণিবিদ্যায় স্নাতক সম্পন্ন করেছেন। বাবা-মা, কিছু প্রিয়জন আর কাল্পনিক চরিত্রদের নিয়ে তার বসবাস। মানুষের ভালোবাসা অর্জনকে লেখক তার জীবনের পরম প্রাপ্তি মনে করেন।

    প্রকাশিত গ্রন্থ:

    এই শহরে প্রেম নেই’ (কাব্য)

    ‘নীল নির্বাসন’ (গদ্য)

    ‘ভালো থেকো মেঘমালা’ (উপন্যাস)

    ৳ 196৳ 280
  • প্রমাণ করো যে

    তামজীদ মোর্শেদ রুবাবের জন্ম ২৪ জুলাই, ১৯৯৯ সালে ঢাকায়। মা খন্দকার শামিমা ইয়াছমিন ও বাবা এএইচ মনজুর মোর্শেদ। ছোটবেলা থেকেই নতুন নতুন বিষয় শিখতে আগ্রহী, রুবাব ২০১৭ সালে প্রথমবার আইএমওতে অংশগ্রহণ করেন এবং ব্রোঞ্জপদক অর্জন করেন। একই বছর তিনি এপিএমওতে ব্রোঞ্জ আর আইজিওতে রৌপ্যপদক পেয়েছেন। ২০১৮ সালে তিনি আইএমওতে আরও একটা ব্রোঞ্জ পান। এরপর তিনি আহমেদ জাওয়াদ চোধুরীর সাথে গণিতের স্বপ্নযাত্রা বইটি লেখেন। এখন হংকং ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজিতে অধ্যয়নরত।


    মুরসালিন হাবিবের গণিতের প্রতি আগ্রহের সূচনা হয় স্কুলের লাইব্রেরিতে একটা বই খুঁজে পাওয়ার মাধ্যমে। বইটা থেকে তিনি বুঝতে পারেন যে পাঠ্যবইয়ের গণিতের বাইরেও শেখার অনেক কিছু আছে। আর তখন থেকেই শুরু হয় তার পাঠ্যবইয়ের বাইরের গণিত শেখার যাত্রা। গণিতের প্রতি ভালোবাসা থেকেই কাজ করেছেন বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াডের সাথে। বর্তমানে পড়ালেখা করছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে। তার প্রিয় কাজ হলো নতুন নতুন জিনিস শেখা এবং নিজের সম্পর্কে থার্ড পারসনে লেখা (যেমনটা তিনি এখন করছেন)!


    তাহ্‌নিক নূর সামীনের ছোটবেলা থেকেই অভ্যাস পড়া আর পড়া। সেটা পেপার, বই, ম্যাগাজিন যা-ই হোক। প্রথম সৃজনশীল মেধা অন্বেষণে তিনি গণিতে দেশসেরা হন। ফিজিকস, ইনফরমেটিকস

    ৳ 336৳ 480
  • নির্বাচিত কবিতা

    হাবীবুল্লাহ সিরাজী ১৯৪৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর ফরিদপুর জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬৮ সালে তিনি বুয়েটের ছাত্র সংসদের সাহিত্য সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হন। ১৯৭০ সালে বুয়েট থেকে যন্ত্রকৌশল বিভাগে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৮৭ সালে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনের অগ্নিগর্ভ থেকে জন্ম নেয়া জাতীয় কবিতা পরিষদের তিনি চার মেয়াদে (২০০৭-২০১৫) সভাপতি ছিলেন।
    কবি হিসেবে হাবীবুল্লাহ সিরাজীর বিকাশ ষাটের দশকের শেষ দিকে। এই দশকে অনেক মেধাবী ও জনপ্রিয় কবি থাকা সত্ত্বেও হাবীবুল্লাহ সিরাজীর কাব্যাঙ্গন ষাটের মূল প্রবণতা থেকে প্রাতিস্বিক।
    হাবীবুল্লাহ সিরাজীর প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থের সংখ্যা ৩৫। এছাড়াও তার ১০টি পদ্য/ছড়াগ্রন্থ, ২টি উপন্যাস, ২টি প্রবন্ধ, ১টি স্মৃতিকথা প্রকাশিত হয়েছে।
    বাংলা সাহিত্যে অবদানের স্বীকৃতি-স্বরূপ তিনি যশোর সাহিত্য পরিষদ পুরস্কার (১৯৮৭), আলাওল সাহিত্য পুরস্কার (১৯৮৯), বাংলা একাডেমী সাহিত্য পুরস্কার (১৯৯১), বিষ্ণু দে পুরস্কার (২০০৭), রূপসী বাংলা পুরস্কার (২০১০) ও একুশে পদক (২০১৬) লাভ করেন।
    কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী ২০ ডিসেম্বর ২০১৮ থেকে মৃত্যু পর্যন্ত বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক ছিলেন। ক্যানসারে আক্রান্ত হাবীবুল্লাহ সিরাজী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৪ মে ২০২১ তারিখে মৃত্যুবরণ করেন।
    বাংলা সাহিত্যের এই মহান কবি ১৯৭৬ সালের ২৯ আগস্ট শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

    ৳ 210৳ 300
  • ইকিগাই

    ইউসুফ মুন্না। জন্ম দক্ষিণের দ্বীপ মাতারবাড়ীতে। আর বেড়ে ওঠা চট্টগ্রামে। চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শেষে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন অধ্যয়ন বিভাগে স্নাতক করছেন। বছর ছয়েক আগে ব্লগিংয়ের মাধ্যমে মূলধারায় লেখালেখির শুরু। পরবর্তী সময়ে বেশ কয়েক বছর চট্টগ্রামের একটি স্থানীয় দৈনিকের বিজ্ঞান পাতায় লিখেছেন। বর্তমানে সমসাময়িক বিষয়াবলি নিয়ে একটি ইংরেজি দৈনিকে নিবন্ধ লেখেন। পাশাপাশি প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী হিসেবে যুক্ত আছেন কিশোরভিত্তিক সৃজনশীল প্ল্যাটফর্ম Reflective Teens এ। ইকিগাই; জাপানিদের দীর্ঘ ও সুখী

    ৳ 238৳ 340